টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দুই মাদক কারবারি নিহত

0
137
জিয়াবুল হক, টেকনাফ 

কক্সসবাজারের টেকনাফের হোয়াইক্যংয়ে থানা পুলিশ অবৈধ অস্ত্র ও মাদক উদ্ধার অভিযানে গেলে দু’পক্ষের মধ্যে  গোলাগুলিতে পেশাদার অবৈধ অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী এবং মাদক কারবারী নিহত হয়েছে। এসময় পুলিশের ৩ জন সদস্য আহত হয়। এবং ঘটনাস্থল হতে অস্ত্র, ইয়াবা ও বুলেট উদ্ধার করা হয়েছে।

পুলিশ সুত্রে জানা যায়, ৭ জুলাই  ভোররাতের দিকে টেকনাফ মডেল থানা পুলিশের একটি দল উপজেলার হোয়াইক্যংয়ের ক্রাইমজোনে অবৈধ অস্ত্র ও মাদক উদ্ধার অভিযানে যায়। এসময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে অবৈধ অস্ত্রধারী এবং মাদক কারবারী সিন্ডিকেটের সদস্যরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ করলে পুলিশের এসআই মশিউর রহমান, কনস্টেবল অভিজিৎ দাশ ও এমরান হোসেন আহত হয়। পুলিশও আত্নক্ষার্থে বেশ কিছুক্ষণ থেমে থেমে পাল্টা গুলিবর্ষণ করলে হামলাকারীরা পাহাড়ের দিকে পালিয়ে যায়। পরিস্থিতি শান্ত হলে এলাকা তল্লাশি করে ইয়াবা, অস্ত্র ও কার্তুজসহ টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়নের মৌলভী বাজারের মৃত সোলতান আহমদ ওরফে চামড়া বাদশাহর পুত্র, অর্ধ ডজন মামলার আসামি সাদ্দাম হোসেন (২০) এবং হোয়াইক্যং ইউনিয়নের পশ্চিম মহেশখালীয়া পাড়ার মৃত হাজী আলী আহমদের পুত্র আব্দুল জলিল ওরফে গুরা পুতুইক্কা (৩০) কে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে। আহত পুলিশ সদস্য এবং অস্ত্রধারী ও গুলিবিদ্ধ মাদক কারবারিদের দ্রুত চিকিৎসার জন্য টেকনাফ উপজেলা সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে আহত পুলিশ সদস্যদের চিকিৎসার পর গুলিবিদ্ধ মাদক কারবারিদের আরো উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে রেফার করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তারা মারা যায়। তাদের মৃতদেহ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

সংবাদে সত্যতা নিশ্চিত করেন টেকনাফ মডেল থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) প্রদীপ কুমার দাস।