খাগড়াছড়িতে জেএসএসের বিক্ষোভ

0
62
খাগড়াছড়িতে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহিতি সমিতিরি বিক্ষোভ-সুপ্রভাত
বান্দরবানে হত্যাকাণ্ডের প্রতিবাদ

 

নিজস্ব প্রতিবেদক, খাগড়াছড়ি

বান্দরবানে সন্ত্রাসীদের ব্রাশফায়ারে ৬ নেতাকর্মী হত্যার ঘটনায় খাগড়াছড়িতে বিড়্গোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে দ্বিধাবিভক্ত পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (পিসিজেএসএস-এম এন লারমা)।

মঙ্গলবার বিকালে জেলা শহরের মহাজনপাড়াস’ সূর্য শিখা ক্লাবের সামনে থেকে বিড়্গোভ মিছিল বের করে শহরের প্রধান সড়ক প্রদড়্গিণ করে মুক্তমঞ্চের সামনে এসে সংড়্গিপ্ত সমাবেশ করে।

সংগঠনটির জেলা শাখার সহ-সভাপতি সুভাষ চাকমার সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি সিন্ধু কুমার চাকমা, জেলা কমিটির যুব বিষয়ক সম্পাদক প্রত্যয় চাকমা এবং পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি দীপন চাকমা ।

সমাবেশে থেকে বান্দরবানে ছয় নেতাকর্মী হত্যার ঘটনায় সন’ লারমা সমর্থিত পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতিকে দায়ী করে বক্তারা বলেন, সন’ লারমা পাহাড়ে একের পর এক নারকীয় হত্যাকা-ের ঘটনা ঘটিয়ে যাচ্ছে। তারপরও তিনি আঞ্চলিক পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে বহাল তবিয়তে আছেন। অবিলম্বে হামলার ঘটনার বিচার দাবি করে করেন। অন্যথায় কঠোর কর্মসূচিরও ঘোষণা দেন তারা।

এদিকে পিসিজেএসএস-এম এন লারমা অংশের কেন্দ্রীয় তথ্য ও প্রচার সম্পাদক সুধাকর ত্রিপুরা এক বিবৃতিতে জানান, বান্দরবানে নিহতদের মধ্যে বিমল কানিন্ত চাকমা প্রকাশ বিধু বাবু’র বাড়ি খাগড়াছড়ি জেলার পানছড়ি উপজেলার কুড়াদিয়া ছড়া এলাকায়। তিনি সংগঠনটির কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি। এছাড়া অপর নিহতদের মধ্যে উপদেষ্টা কমিটির সদস্য চিংেথায়াইয়াঅং মারমা প্রকাশ ডেভিডের বাড়ি মানিকছড়ি, বান্দরবান জেলা কমিটির সভাপতি রতন তঞ্চগ্যার বাড়ি বান্দরবানের রোয়াংছড়ি উপজেলার নোয়াপতং, পার্বত্য চট্টগ্রাম যুব সমিতির সদস্য রবীন্দ্র চাকমা মিলনের বাড়ি মহালছড়ি উপজেলার খুলরাম পাড়া এবং যুব সমিতির সদস্য রিপন ত্রিপুরা জয় ও জ্ঞান ত্রিপুরা দীপেনের বাড়ি খাগড়াছড়ি জেলার গুইমারা উপজেলার বাইল্যাছড়িতে।