দেশে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ নতুন উচ্চতায়

0
173

সুপ্রভাত ডেস্ক :

২০২০-২০২১ অর্থবছরের জুন মাসে দেশে ১.৮৩৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার রেমিট্যান্স এসেছে, যা একক মাস হিসেবে বাংলাদেশের রেমিট্যান্স প্রবাহের ইতিহাসে যেকোনো সময়ের তুলনায় সর্বোচ্চ।

দেশের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ৩৬.০১৬ বিলিয়ন  মার্কিন ডলারের নতুন রেকর্ড ছুঁয়েছে। বাংলাদেশের ইতিহাসে যা এ যাবতকালের মধ্যে সর্বোচ্চ।

গত বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত বাংলাদেশের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ছিল ৩২.৭১৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। অর্থাৎ গত এক বছরে বাংলাদেশের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ প্রায় ৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বৃদ্ধি পেয়েছে।

এদিকে ২০২০-২০২১ অর্থবছরের জুন মাসে দেশে ১.৮৩৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার রেমিট্যান্স এসেছে, যা একক মাস হিসেবে বাংলাদেশের রেমিট্যান্স প্রবাহের ইতিহাসে যেকোনো সময়ের তুলনায় সর্বোচ্চ।

বৃহস্পতিবার অর্থ মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২০১৯-২০ অর্থবছরে দেশে রেমিট্যান্স প্রবাহ হয়েছে ১৮.২০৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার, যা ২০১৮-১৯ অর্থবছরে ছিল ১৬.৪২০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।

রেমিট্যান্সের পাশাপাশি রিজার্ভের উল্লেখযোগ্য বৃদ্ধিতে রেমিট্যান্সের অন্তঃপ্রবাহ গুরূত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে এবং বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ও রেমিট্যান্স প্রবাহ বৃদ্ধি পাওয়ার ক্ষেত্রে সরকার কর্তৃক বাস্তবায়িত ২ শতাংশ নগদ প্রণোদনা প্রবাসীদের যথেষ্ট অনুপ্রাণিত করেছে বলে উল্লেখ করা হয় বিজ্ঞপ্তিতে।

মন্ত্রণালয়ের ওই বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, ‘বাংলাদেশ ব্যাংকের সাম্প্রতিক নীতি সহায়তাও যথেষ্ঠ সহায়ক ভূমিকা রেখেছে। ফলশ্রুতিতে তারা নিকট অতীতে ব্যাংকিং চ্যানেলে প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা প্রেরণ করে। ব্যাংকগুলো তাদের বৈদেশিক মুদ্রা ধারণের লিমিট পর্যন্ত রেখে অতিরিক্ত অর্থ বাংলাদেশ ব্যাংকের নিকট বিক্রি করে। এভাবেই রিজার্ভের স্থিতি ক্রমান্বয়ে বৃদ্ধি পেয়েছে।’