ছয় ঘণ্টা জেরা ডি সিলভাকে

0
79

 

সুপ্রভাত ক্রীড়া ডেস্ক :

নয় বছর আগে, এক এপ্রিলের রাতে, মহেন্দ্র সিংহ ধোনির মারা ছয় ভারতের মাথায় বিশ্ব চ্যাম্পিয়নের মুকুট পরিয়ে দিয়েছিল। ওয়াংখেড়েতে সে দিন শচীন টেন্ডুলকার-যুবরাজ সিংহদের জয়োৎসব আজও ভারতীয় ক্রিকেটের লোকগাথায় রয়ে গিয়েছে। কিন্তু সেই বিশ্বকাপ ফাইনালের উপরেই গড়াপেটার ছায়া পড়তে শুরু করেছে। যা শুরু হয়েছিল শ্রীলঙ্কার প্রাক্তন এক ক্রীড়ামন্ত্রীর অভিযোগে। কিন্তু এখন জল আরও ঘোলাটে হচ্ছে। শ্রীলঙ্কা সরকারের পক্ষ থেকে তদন্ত শুরু হয়েছে এই অভিযোগ নিয়ে।

কিছু দিন আগে শ্রীলঙ্কার প্রাক্তন ক্রীড়ামন্ত্রী মহিন্দনন্দ অতুলগামাগে অভিযোগ করেছিলেন, ২০১১ বিশ্বকাপ ফাইনালে ভারতের বিরুদ্ধে ম্যাচ গড়াপেটা করেছিল শ্রীলঙ্কা। যা নিয়ে তুমুল বিতর্ক হয়। ওই সময় শ্রীলঙ্কার জাতীয় নির্বাচক কমিটির দায়িত্বে থাকা অরবিন্দ ডি সিলভা তদন্তের দাবি তুলেছিলেন। প্রমাণ চেয়েছিলেন ২০১১ শ্রীলঙ্কার দলে থাকা দুই তারকা ক্রিকেটার মাহেলা জয়বর্ধনে এবং কুমার সঙ্গকারা। সেই অভিযোগ নিয়েই তদন্ত শুরু হয়েছে। প্রাথমিক ভাবে জেরা করা হয়েছে ডি’সিলভা এবং বিশ্বকাপ দলে থাকা উপুল থরঙ্গাকে। জেরা করা হবে সঙ্গকারাকেও।

গত কাল বিশেষ তদন্ত কমিটির সামনে ডেকে পাঠানো হয় ডি সিলভাকে। যার পরে তদন্তের দায়িত্বে থাকা বিশেষ দুর্নীতি দমন শাখার সুপার জগৎ ফনসেকা বলেন, ‘২০১১ বিশ্বকাপ ম্যাচ গড়াপেটার অভিযোগ নিয়ে আমরা তদন্ত শুরু করেছি। ডি সিলভার বক্তব্য আমরা শুনেছি। তার পরে ঠিক করা হয়েছে সেই দলের সদস্য উপুল থরঙ্গাকেও ডেকে পাঠানো হবে।’ জানা গিয়েছে, ছয় ঘণ্টার উপরে জেরা করা হয়েছে শ্রীলঙ্কার কিংবদন্তি ব্যাটসম্যান এবং ১৯৯৬ সালে বিশ্বকাপ জয়ের নায়ক ডি সিলভাকে।

নির্দেশ মতো বুধবার তদন্ত কমিটির সামনে হাজির হয়েছিলেন থরঙ্গা। ভারতের বিরুদ্ধে সেই ফাইনালে ইনিংস ওপেন করেছিলেন তিনি। ২০ বলে দুই রান করে আউট হয়ে যান এই ওপেনার। জানা গিয়েছে, তাকে ঘণ্টা দুয়েকের উপরে জেরা করা হয়। পরে বেরিয়ে এসে সাংবাদিকদের শ্রীলঙ্কা ওপেনার বলেন, ‘তদন্তের ব্যাপারে ওরা আমাকে কিছু প্রশ্ন করেছিল। আমি আমার বক্তব্য তদন্ত কমিটিকে জানিয়ে এসেছি।’

শ্রীলঙ্কার প্রচারমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, বিশ্বকাপ দলের অধিনায়ক সঙ্গকারাকেও ডেকে পাঠিয়েছে বিশেষ তদন্ত কমিটি। কলম্বোর একটি সংবাদপত্র তদন্তের দায়িত্বে থাকা ফনসেকাকে উদ্ধৃত করে জানিয়েছে, সঙ্গকারাকেও এ বার জেরা করা হবে। আজ, বৃহস্পতিবার, সকালে তদন্ত কমিটির সামনে হাজিরা দেওয়ার কথা সঙ্গকারার।

গত মাসে শ্রীলঙ্কার ক্রীড়ামন্ত্রক ম্যাচ গড়াপেটার এই অভিযোগ নিয়ে তদন্তের আদেশ দেয়। যার পরে ২৪ জুন, প্রাক্তন ক্রীড়ামন্ত্রীর বক্তব্য শোনে তদন্ত কমিটি। আলুথগামাগের অভিযোগ ছিল, ভারতের বিরুদ্ধে ওই ফাইনালে গড়াপেটা হয়েছিল। তবে তিনি কোনও ক্রিকেটারের দিকে আঙুল না তুলে বলেছিলেন, কিছু কিছু লোক এর সঙ্গে জড়িত। যার পরে সঙ্গকারা এবং জয়বর্ধনে প্রমাণের দাবি করেন। জয়বর্ধনে তো এও বলেছিলেন, আবার সার্কাস শুরু হয়ে গিয়েছে। এর আগে ২০১১ বিশ্বকাপ ফাইনালের ফল নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন অর্জুন রানাতুঙ্গাও। ১৯৯৬ সালের শ্রীলঙ্কার বিশ্বকাপজয়ী দলের অধিনায়ক রণতুঙ্গাও তদন্তের দাবি তুলেছিলেন। এ বার গড়াপেটার অভিযোগ নিয়ে সত্যিই তদন্ত শুরু করে দিল শ্রীলঙ্কা সরকার।

খবর : আনন্দবাজার’র।