ব্যতিক্রমী উদ্যোগ লাভ ফর চট্টগ্রামের মেডিক্যাল সামগ্রী হস্তান্তর

0
110
চট্টগ্রাম জেনারেল হাস্পাতালে লাভ ফর চট্টগ্রামের মেডিকেল সামগ্রী হস্তান্তর

চট্টগ্রামের বিপর্যস্ত স্বাস্থ্যসেবা কাটিয়ে উঠতে এগিয়ে এসেছেন চট্টগ্রামে বেড়ে ওঠা সারা বিশ্বে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা নিজস্ব কর্মক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠিত কিছু সফল মানুষ। এরা সবাই বন্ধু। তারা এই ফ্রেন্ডস ফান্ডিং ইনিশিয়েটিভটির নাম দিয়েছেন ‘লাভ ফর চট্টগ্রাম’।

এই উদ্যোগের শুরুতেই তারা চট্টগ্রাম জেনারেল হাস্পাতালে দান করলেন কোভিড মহামারীতে জীবন রক্ষার জন্য প্রয়োজনীয় ৭.২ কিউবিক মিটারের ১০টি অক্সিজেন সিলিন্ডার, এন৯৫ মাস্ক, পিপিই ও নন রিব্রিদেবল মাস্ক। লাভ ফর চট্টগ্রামের পক্ষে এই মেডিকেল সামগ্রী হস্তান্তর করেন আর্কিটেক্ট আশিক ইমরান, ফিনলে প্রপার্টিজের এমডি মোফাক্ষারুল ইসলাম এবং বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও চট্টগ্রাম বোট ক্লাবের কার্যনির্বাহী কমিটির প্রাক্তন সদস্য আতাউল হাকিম খসরু।

অনুষ্ঠানে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের পক্ষে সিনিয়র কনসালট্যান্ট সার্জারি ডা. বিজন কুমার নাথ ও জুনিয়র কনসালট্যান্ট সার্জারি ডা. মোহাম্মদ নুরুল আমিন এসব সামগ্রী গ্রহণ করেন।
এ প্রয়াসের অন্যতম উদ্যোক্তা মেঘনা গ্রুপ অফ ইন্ডাস্ট্রিজের উপ ব্যবস্থাপনা পরিচালক, বিশিষ্ট গীতিকবি, চট্টগ্রামের কৃতি সন্তান আসিফ ইকবাল বলেন ‘আমাদের এ প্রচেষ্টা শুরু হলো মাত্র। আমাদের জন্মস্থান চট্টগ্রামকে আমাদের অনেক কিছু দেয়ার আছে। প্রাপ্তির চিন্তা না করে চট্টগ্রামের মানুষের জন্যে কিছু করতে পারলে আমাদের জীবন সার্থক হবে।

এজন্যেই সারা বিশ্বে ছড়িয়ে থাকা চট্টগ্রামে জন্ম নেয়া সফল বন্ধু ও ব্যক্তিত্বদের আমরা এক করেছি। আমরা চাই বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা চট্টগ্রামের সকল কৃতি মানুষেরা চট্টগ্রামের এ দুঃসহ সময়ে মেধা, অর্থ এবং কাজ দিয়ে চট্টগ্রামের উন্নয়নে অবদান রাখুন এবং আমাদের এই ক্ষুদ্র প্রচেষ্টাকে বড় করে তুলুন।

তিনি চট্টগ্রামের মেধাবী সফল মানুষদের একত্রিত ভাবে চট্টগ্রামের জন্যে কাজ করার উদার্ত আহবান জানান। আর্কিটেক্ট আশিক ইমরান বলেন “আমাদের প্রাথমিক লক্ষ্য চট্টগ্রামের স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনার উন্নয়নে কাজ করা। জেনারেল হাসপাতালের পর আমরা চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতাল, চট্টগ্রাম মেডিক্যাল হাসপাতাল সহ অন্যান্য হাসপাতালের প্রয়োজন নিরুপণ করে সাধ্যমত সাহায্য করবো।

ফিনলে প্রপার্টিজের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোফাক্ষারুল ইসলাম বলেন লাভ ফর চট্টগ্রামে নগরীর মানুষদের কল্যাণ ও উন্নয়নে চট্টগ্রামে জন্ম নেয়া পঞ্চাশোর্ধ কৃতি মানুষ দীর্ঘমেয়াদি অবদান ও পরিকল্পনা ও কাজ করার জন্যে রাজি হয়েছেন।

আতাউল হাকিম বলেন, আমরা আশা করি আমরা চট্টগ্রামে পরিবর্তনের একটা বার্তা হতে পারবো। সরকারি, ব্যক্তি ও প্রাতিষ্ঠানিক উদ্যোগের পাশাপাশি এই প্রথমবারের মতো ফ্রেন্ডস ফান্ডিং ইনিশিয়েটিভও যুক্ত হলো।

জেনারেল হাসপাতালের পক্ষে আর্ত মানবতার সেবায় এগিয়ে আসার জন্যে চট্টগ্রামের সকল সফল ব্যক্তিত্বদের এগিয়ে আসার অনুরোধ জানান এবং লাভ ফর চট্টগ্রাম এর এই উদ্যোগ অব্যাহত রাখার অনুরোধ জানান।