করোনা ভাইরাস: নতুন শনাক্ত প্রায় ৪ হাজার, চট্টগ্রামে মৃত্যু ১০ জনের

0
67

সুপ্রভাত ডেস্ক :

বাংলাদেশে নতুন করে আরো ৩,৮০৯ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। আর গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে মারা গেছে ৪৩ জন। এনিয়ে বাংলাদেশে করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়ে মোট মারা গেলেন ১,৭৩৮ জন।

আর এখন পর্যন্ত বাংলাদেশে মোট কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়েছেন ১ লাখ ৩৭ হাজার ৭৮৭ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ১৮,০৯৯ টি নমুনা পরীক্ষা করে এসব তথ্য জানা গেছে বলে নিয়মিত ব্রিফিংয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক নাসিমা সুলতানা জানান।

দেশের ৬৮টি আরটি-পিসিআর ল্যাবের মধ্যে ৬৫টির পরীক্ষা তথ্য তুলে ধরে তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাস শনাক্তে ১৭ হাজার ৩৪টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। আগের কিছু নমুনাসহ পরীক্ষা করা হয়েছে ১৮ হাজার ৯৯টি নমুনা। এ নিয়ে মোট নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা দাঁড়াল ৭ লাখ ৩০ হাজার ১৯৭টিতে।

দেশে নতুন করে আরো এক হাজার ৪০৯ জন করোনারোগী সুস্থ হয়েছেন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৫৫ হাজার ৭২৭ জন। শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৪০ দশমিক ৪৪ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তের হার ২১ দশমিক ০৫ শতাংশ, এ পর্যন্ত শনাক্তের হার ১৮ দশমিক ৮৭ শতাংশ। তবে শনাক্ত বিবেচনায় মৃত্যুর হার এক দশমিক ২৬ শতাংশ।

গত ২৪ ঘণ্টায় ৪৩ জন মারা যাওয়ার কথা বললেও নারী-পুরুষ বিভাজনের সময় ৪৫ জনের তথ্য জানান তিনি। বলেন, যারা মারা গেছেন তাদের মধ্যে ৩১ জন পুরুষ এবং নারী ১৪ জন। তাদের বয়স বিশ্লেষণে জানানো হয়, মারা যাওয়াদের মধ্যে ২১ থেকে ৩০ বছরের দুজন, ৩১ থেকে ৪০ বছরের একজন, ৪১ থেকে ৫০ বছরের সাতজন, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ১৩ জন, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ১২ জন, ৭১ থেকে ৮০ বছরের সাতজন এবং ৮১ থেকে ৯০ বছরের বয়সসীমার একজন রয়েছেন।

মৃতদের মধ্যে ঢাকা বিভাগেরই বাসিন্দা রয়েছেন ২১ জন, চট্টগ্রাম বিভাগের ১০ জন, খুলনা ও সিলেটে তিনজন করে, রাজশাহী ও বরিশালে দুজন করে এবং রংপুর ও ময়মনসিংহ বিভাগে একজন করে মৃত্যুবরণ করেছেন। এদের মধ্যে হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেছেন ৩০ জন এবং বাড়িতে মারা গেছেন ১২ জন এবং মৃত অবস্থায় হাসপাতালে এসেছেন একজন।

গত ডিসেম্বরের শেষ দিকে চীনের উহান শহরে প্রথম শনাক্ত হওয়া ভয়াবহ ছোঁয়াচে এই ভাইরাসটি বাংলাদেশে প্রথম শনাক্ত হয় গত ৮ মার্চ। সেদিন তিনজন আক্রান্ত শনাক্ত হওয়ার কথা জানায় সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর)।