প্রিন্সেস ডায়ানার ভূমিকায় ক্রিস্টেন স্টুয়ার্ট

0
133

সুপ্রভাত ডেস্ক :
রানি হওয়ার সুবর্ণ সুযোগ, রাজার সংসার, রাজপ্রাসাদ- এতসব বৈভব ছেড়ে দেওয়ার মতো অভূতপূর্ব পদক্ষেপ নিয়ে সাড়া ফেলেছিলেন প্রিন্সেস ডায়ানা। কীভাবে তিনি বোমা ফাটানোর মতো সেই কাজটি করেছেন তা দেখা যাবে নতুন একটি চলচ্চিত্রে। এতে তার ভূমিকায় থাকছেন আমেরিকান অভিনেত্রী ক্রিস্টেন স্টুয়ার্ট।
নতুন ছবির নাম ‘স্পেন্সার’। প্রিন্স চার্লসের সঙ্গে প্রয়াত রাজবধূর বিয়েবিচ্ছেদের ঘটনা নিয়ে নব্বই দশকের প্রেক্ষাপটে তৈরি হবে এটি। সব মিলিয়ে তিন দিনের একটু বেশি সময়ের গল্প বলা হবে। ২০২১ সালে এর শুটিং শুরু হওয়ার কথা। তবে চার্লস চরিত্রে কে অভিনয় করবেন তা জানানো হয়নি।
গল্পের শুরু হবে ইংল্যান্ডের নরফোকে অবস্থিত সান্ড্রিংহামে হাউস অব উইন্ডসরে। কাহিনিতে দেখা যাবে, স্বামীর সঙ্গে বনিবনা না হওয়ার বিষয়টি বড়দিনের ছুটিতে উপলব্ধি করেন ডায়ানা। ডেডলাইনকে ছবিটির পরিচালক চিলির পাবলো লারেন বলেন, ‘একজন নারী যখন রানি হওয়ার পরিবর্তে সাধারণ জীবনযাপন চান তখন তা বিশাল এক সিদ্ধান্তই বটে। ব্যাপারটা রূপকথার মতোই। আমরা সেই সত্যি গল্পের ভেতর ঢোকার চেষ্টা করবো। চার্লসের সঙ্গে সাক্ষাতের আগে জীবনটা যেমন ছিল, তিনি সেটি ফিরে পেতে চেয়েছিলেন। তার জীবনের গল্প কোটি কোটি মানুষের মন ছুঁয়ে গেছে। তাই আমরা ছবিটি বানাচ্ছি।’
বুধবার (১৭ জুন) হলিউড ভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ডেডলাইন জানিয়েছে, ‘স্পেন্সার’-এর চিত্রনাট্য তৈরি করছেন ‘পিকি ব্লাইন্ডার্স’ টিভি সিরিজের গ্রষ্টা স্টিভেন নাইট। ছবির এই নামের বেছে নেওয়ার কারণ ডায়ানার প্রকৃত নাম ‘লেডি ডায়ানা স্পেন্সার’।
১৯৮১ সালে প্রিন্স চার্লসের সঙ্গে বিয়ের বন্ধনে জড়ান তিনি। এরপর প্রিন্সেস অব ওয়েলস তকমা জুড়ে যায় তার নামের পাশে।
১৯৯২ সালে স্বামীর সংসার থেকে বেরিয়ে যান ডায়ানা। ১৯৯৬ সালে আনুষ্ঠানিকভাবে বিয়েবিচ্ছেদ হয় তাদের। এর পরের বছর ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে গাড়ি দুর্ঘটনায় নিহত হন তিনি। তার বয়স হয়েছিল ৩৬ বছর।
কয়েক বছর ধরে অভিনেত্রী হিসেবে দক্ষতার প্রমাণ রেখেছেন ক্রিস্টেন স্টুয়ার্ট।
পরিচালক পাবলো লারেন মনে করেন, ‘ক্রিস্টেন স্টুয়ার্ট তার সময়ের সেরা অভিনেত্রীদের একজন। তার ছবিগুলো দেখেছি, নানান রঙের চরিত্র রূপায়ন করতে সক্ষম। অভিনেত্রী হিসেবে তার বৈচিত্র্য ও দক্ষতা অন্যরকম। তার অভিব্যক্তি বেশ রহস্যময়। কখনও মনে হবে তিনি ভেঙে পড়বেন, কখনও খুব শক্তিশালী। ডায়ানা চরিত্রের জন্য এটাই আমাদের প্রয়োজন। এসব উপাদানের সংমিশ্রণ আছে বলেই তাকে ভেবেছি। শুধু দৃষ্টি দিয়েই সবকিছু ধারণ করে ফেলতে পারে এমন একজনকে পেলে বোঝা যায়, তিনি কাক্সিক্ষত সেরাটা দিতে পারবেন। আমার তো মনে হচ্ছে, তিনি একইসঙ্গে বিমুগ্ধ ও কৌতূহলী করবেন দর্শকদের।’
যুক্তরাষ্ট্রের প্রয়াত প্রেসিডেন্ট জন এফ কেনেডির স্ত্রীর জীবন অবলম্বনে ‘জ্যাকি’ (২০১৬) তৈরি করে খ্যাতি পেয়েছেন পাবলো লারেন। কবি পাবলো নেরুদার জীবনের একটি অধ্যায় নিয়ে তার বানানো ‘নেরুদা’ (২০১৬) কান উৎসবের ডিরেক্টর’স ফোর্টনাইটে স্থান পায়। চিলির অস্কারজয়ী ছবি ‘অ্যা ফ্যান্টাস্টিক ওম্যান’ তারই প্রযোজনা।
২০০৮ থেকে ২০১২ সাল পর্যন্ত হলিউডের ব্যবসাসফল ‘টোয়াইলাইট’ সিরিজের ছবিতে বেলা সোয়ান চরিত্রে অভিনয় করে খ্যাতি পান ক্রিস্টেন স্টুয়ার্ট। সবশেষ গত বছর “চার্লি’স অ্যাঞ্জেলস” রিমেকে দেখা গেছে তাকে। ৩০ বছর বয়সী এই তারকার আরেক বিখ্যাত ছবি ‘স্নো হোয়াইট অ্যান্ড দ্য হান্টসম্যান’ (২০১২)।
২০১৩ সালে ‘ডায়ানা’ ছবিতে প্রিন্সেস ডায়ানা চরিত্রে অভিনয় করেন ব্রিটিশ তারকা অভিনেত্রী নাওমি ওয়াটস। জার্মান পরিচালক অলিভার হার্শবিগেল তুলে ধরেন ডায়ানার জীবনের শেষ দুই বছর। নেটফ্লিক্সের ‘দ্য ক্রাউন’ সিরিজের চতুর্থ মৌসুমে থাকবে ডায়ানার কথা। এতে অভিনয় করবেন নবীন তারকা এমা করিন।
খবর : বাংলাট্রিবিউন’র।