বিটার উদ্যোগে ‘তারুণ্যের বাজেট ভাবনা’ শীর্ষক সেমিনার

0
57

“তরুণরা আমাদের সমাজের গুরুত্বপূর্ণ অংশ। তাদের ছাড়া সমাজের উন্নতি সাধন করা সম্ভব নয়। তাই, একটি সুন্দর ও উন্নত সমাজ ব্যবস্থা তৈরি করতে হলে দেশের যে কোনো কাজে তরুণদের অগ্রাধিকার দেয়া দরকার। তেমনি আগামী বাজেট বাস্তবায়নে তরুণদের বিষয়টি ভাবা দরকার। নতুন বাজেট প্রণয়নে সমাজে তরুণদের স্বাবলম্বী করতে একটি ‘যুব ও জেন্ডার সংবেদনশীল বাজেট’ বাস্তবায়নের কোনো বিকল্প নেই।”
বিটা উদ্যোগে আয়োজিত ‘তারুণ্যের বাজেট ভাবনা’ শীর্ষক এক সেমিনারে বক্তারা এ সব কথা বলেন। গত ৯ জুন সন্ধ্যায় অনলাইনে এ সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।
এতে প্রধান অতিথি ছিলেন, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সামসুদ্দোহা। বিশেষ অতিথি ছিলেন চসিকের ২৯ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. জোবায়ের। বিটার কালচারাল ফ্যাসিলিটর মোস্তাফিজুর রহমানের সঞ্চালনায় সেমিনারে অ্যাকশন ফর ইমপ্যাক্ট’র প্রকল্প পরিচালক হোসাইন মনছুর মাসুম, প্রোগ্রাম অফিসার কান্তা মল্লিকসহ বিটার ইয়ুথ দলের প্রায় ৩০ জন সদস্য অংশ নেন।
সেমিনারে বিটা ইয়ুথ দলের সদস্যরা চসিকের আগামী বাজেটে তরুণদের উন্নয়নে একটি বরাদ্দ রাখার দাবি জানায়। তারা যুব নারী ও পুরুষদের কর্মমুখী প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করার অনুরোধ করেন। ইয়ুথরা চসিকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার সাথে সংলাপে অংশ নিয়ে বলে, ‘সরকারি-বেসরকারিসহ অনেকগুলো প্রশিক্ষণ কেন্দ্র রয়েছে। যেগুলো থেকে শিক্ষিত তরুণরা প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে। এ সব প্রশিক্ষণ কেন্দ্র থেকে কোর্স শেষে একটা সার্টিফিকেট দিয়ে বাহির করে দেয়। আর এটি তাদের জীবনে শুধু একটি সার্টিফিকেটই রয়ে যায়। এটি দ্বারা জীবনে কোনা কাজেই আসে না। কারণ কাজ শিখলেই তো হয় না! এটি কাজে লাগানোর মত অবস্থারও দরকার হয়। যা এ প্রশিক্ষণ গ্রহণ করা তরুণদের থাকে না। তাই এমন কর্মমুখী প্রশিক্ষণ গ্রহণকারীদের প্রশিক্ষণ শেষে কাজের ব্যবস্থা ও ঋণ প্রদানের ব্যবস্থা করা দরকার।’
এছাড়া শিক্ষা ক্ষেত্রেও চসিককে গরীব তরুণদের আরো বেশি সুযোগ প্রদানের অনুরোধ জানানো হয়।
ইয়ুথদের দাবির জবাবে মো. সামসুদ্দোহা বলেন, ‘শিক্ষা ক্ষেত্রে আগে থেকেই সিটি করপোরেশনের আওতায় থাকা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে নানা সুযোগ-সুবিধা দিয়ে যাচ্ছে। এছাড়া সিটি করপোরেশন তরুণদের উন্নয়নে ধারাবাহিকভাবে কাজ করছে। তাদের নানা প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা আগেও ছিল, প্রয়োজনে সামনে এটি আরো বাড়ানো হবে। এছাড়া চসিকের আগামী বাজেটে তরুণদের নিয়ে আরো ভাবা হবে। দরিদ্র ছেলে-মেয়েদের উন্নয়নে, শিক্ষিত বেকার তরুণদের কর্মমুখী করতে আমরা নানান কর্মমুখী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছি। নারীদের উন্নয়নে আমরা কাজ করছি। আগামী বাজেটে এ নিয়ে আরো ভাবা হবে। আশা করছি, সকলের সহযোগিতায় বাজেট সুন্দরভাবে বাস্তবায়ন করা সম্ভব হবে। বিজ্ঞপ্তি