শাহরুখের এই ছবিগুলো একবার হলেও দেখা উচিত

0
164

সুপ্রভাত ডেস্ক :
শাহরুখ খান কয়েক দশক ধরে ভক্তদের মনমুগ্ধ করেছেন এবং দর্শকদের বিনোদন দিয়েছেন। তার এই ছবিগুলো একবারও হলেও দেখা উচিত সবার।
বাজিগর
শাহরুখ খানের ‘বাজিগর’ ছবিতে ভিকি মালহোত্রার প্রতিকৃতি আজও ভক্তদের মনে আছে। ছবিতে তিনি শিল্পা শেঠি ও কাজলের সাথে রোম্যান্স করেন। ‘বাজিগর’ ১৯৯৩ সালের মুক্তি পায়। মজার বিষয় হচ্ছে, ‘বাজিগর’ প্রথমে অক্ষয় কুমার ও সালমান খানের কাছে অফার করা হয়েছিল।
ডর
‘ডর’ ছবিটি শাহরুখ খানের ট্রাইস্টের এক্সটেনশান হিসাবে এসেছিল। তিনি একটি অবসেসিভ স্টলকারের ভূমিকা রচনা করেছেন। সানি দেওল এবং জুহি চাওলা এতে অভিনয় করেছেন। এসআরকে-এর অ্যান্টি-হিরো প্রতিকৃতি খ্যাতি অর্জন করে এই ছবির মাধ্যমে।
করণ অর্জুন
সালমান ও শাহরুখ খানের ভক্তরা এই ছবিটিকে চিরদিনের জন্য লালিত করবেন। এই জুটির অন্যতম বড় হিট ছবি এটি। ‘করণ অর্জুন’ দুই অভিনেতাকে ভাইয়ে চরিত্রে দেখিয়েছিলেন এবং পুনর্জন্ম নাটকটি দর্শকদের কাছে ব্যাপক জনপ্রিয় ছিল। উত্তেজনাপূর্ণ লড়াইয়ে ক্রম থেকে শুরু করে রোমাঞ্চকর ফ্ল্যাশব্যাক মুহূর্ত ছিল বিনোদনের এক নিখুঁত প্যাকেজ।
দিলওয়ালে দুলহানিয়া লে যায়েঙ্গে
১৯৯৫ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘দিলওয়ালে দুলহানিয়া লে জায়েঙ্গে’ হিসাবে শাহরুখ খান প্রচুর ফ্যান ফলো করে উপভোগ করেছেন। গান থেকে শুরু করে এসআরকে-কাজলের হালকা চিত্তের রোম্যান্স এবং আইকনিক ট্রেনের দৃশ্য এখেেনা দর্শকদের হৃদয়ে গেঁথে আছে। দুই দশকেরও বেশি সময় ধরে ‘দিলওয়ালে দুলহানিয়া লে জায়েঙ্গে’ মুম্বাইয়ে একটি প্রেক্ষাগৃহে প্রদর্শিত হয়েছিল।
কুছ কুছ হোতা হ্যায়
শাহরুখ খান এবং কাজল ১৯৯৯ সালে আরও একটি স্মরণীয় রোমান্টিক জুটি বেঁধেছিলেন। কলেজ বন্ধুত্ব থেকে শুরু করে বছর পরে প্রেমিক হিসাবে পুনরায় একত্রিত হওয়া- ‘কুছ কুছ হোতা হ্যায়’ ভক্তদের কাছে সর্বকালের প্রিয়। সিনেমায় রানী মুখার্জির চমকপ্রদ ঝলক এবং সালমান খানও একটি অংশে অভিনয় করেন।
মাই নেম ইজ খান
২০১০ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘মাই নেম ইজ খান’ তাদের অন্যতম সফল ছবি। এসআরকে এটিতে তার ক্যারিয়ার সেরা অভিনয়ে দেখেছিল। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ৯/১১ সন্ত্রাসী হামলার পটভূমির বিরুদ্ধে সেট করা নাটকে তার ‘খান’ নামটি রক্ষা করেছিলেন।
দেবদাস
শাহরুখ খান ২০০২ সালে সঞ্জয় লীলা ভনসালির ‘দেবদাস’ ছবিতে অভিনয় করেন। শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ে উপন্যাস অবলম্বনে নির্মিত হয়েছিল এটি। বিস্তৃত সেট, দুর্দান্ত গান এবং দুটি চমকপ্রদ শীর্ষস্থানীয় মহিলা -ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন এবং মাধুরী দীক্ষিত।
কাল হো না হো
নির্মাতা করণ জোহর ‘কাল হো না হো’ সিনেমাটি বানিয়েছিলেন শাহরুখকে নিয়ে। তার চরিত্রের অকাল মৃত্যু, সাইফ আলি খান ও প্রীতির মধ্যে একটি সমান্তরাল রোম্যান্স দেখা গেছে এটিতে।
ডন
শাহরুখ খান অমিতাভ বচ্চনের জুতাতে পা রেখেছিলেন। ‘ডন’ রিমেকে অমিতাভের চরিত্রের নেয়া হয়েছিল শাহরাখকে। ফারহান আক্তার পরিচালিত এই থ্রিলারে তিনি দ্বৈত ভূমিকায় অভিনয় করেন তিনি। ২০১১ সালে এটির সিক্যুয়েল বের হয়। ভক্তরা এই থ্রিলার ফ্র্যাঞ্চাইজির তৃতীয় অংশটির জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছেন।
তথ্যসূত্র : টাইমসঅফইন্ডিয়া’র।