বিএনপি নেতা কামাল উদ্দীনের মৃত্যুতে ক্ষোভ আবদুল্লাহ আল নোমানের

0
135

করোনা উপসর্গ নিয়ে গুরুতর অসুস্থ হয়ে আজ ১১ জুন (বৃহস্পতিবার) ভোরে আইসিইউ সাপোর্ট না পেয়ে চিকিৎসাবিহীন অবস্থায় চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি লায়ন মোহাম্মদ কামাল উদ্দীনের মৃত্যুতে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও সাবেক মন্ত্রী আবদুল্লাহ আল নোমান এক বিবৃতিতে সরকারের প্রতি ক্ষোভ এবং মরহুমের পরিবারের প্রতি গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।
বিবৃতিতে আবদুল্লাহ আল নোমান সরকারের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, করোনা রোগীদের চিকিৎসা নিয়ে সরকার অঘোষিতভাবে দ্বৈতনীতি গ্রহণ করেছে। সরকারের মন্ত্রী, এমপি ও সরকারি দলের নেতারা করোনা আক্রান্ত হলে তাদের সরকারি হেলিকপ্টার ব্যবহার করে ঢাকায় নিয়ে গিয়ে উন্নত চিকিৎসা প্রদান করছেন আর অন্যদিকে চট্টগ্রামের সাধারণ মানুষ বিনা চিকিৎসায় মারা যাচ্ছেন। এটা চট্টগ্রামের প্রতি সরকারের বিমাতাসুলভ আচরণের বহিঃপ্রকাশ।
তিনি বলেন, সরকারে প্রতিনিধিত্বকারী চট্টগ্রামের মন্ত্রীরা চট্টগ্রামের মানুষ যাতে সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে নির্বিঘেœ চিকিৎসা পায় সে ব্যাপারে দৃশ্যমান কোনো কার্যক্রম গ্রহণ করতে পারেননি। ’৯১ সালের ঘূর্ণিঝড় এবং পরবর্তী বিভিন্ন দুর্যোগকালীন সময়ে বিএনপি’র আমলে চট্টগ্রামের মানুষের জন্য একজন মন্ত্রীকে বিশেষ দায়িত্ব দিয়ে স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী চিকিৎসা ও ত্রাণ তৎপরতা তদারকি করতেন। বর্তমান পরিস্থিতিতে চট্টগ্রামের মানুষের প্রতি সরকার যথাযথ দায়িত্ব পালন করছেনা। প্রতিদিন বহু মানুষ অসুস্থতা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হতে না পেরে আবার অনেকেই হাসপাতালে আইসিইউ না পেয়ে নির্মমভাবে মারা যাচ্ছেন।
এ অবস্থায় চট্টগ্রামে করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় গুরুতর অসুস্থ মানুষের জন্য সশস্ত্র বাহিনীর হেলিকপ্টার ব্যবহার ও সিএমএইচে ভর্তির সুযোগ দেওয়ার জন্য তিনি সরকারের প্রতি উদাত্ত আহ্বান জানান।
তিনি আরো বলেন, বিএনপি নেতা কামাল উদ্দীন অত্যন্ত বিনয়ী ও মার্জিত রাজনীতিবিদ ছিলেন। এছাড়া তিনি ছিলেন স্পষ্টবাদী ও সকলের কাছে গ্রহণযোগ্য একজন দক্ষ সংগঠক।
তিনি মরহুমের শোকাহত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করেন এবং মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন।