চিকিৎসক রাজি না হওয়ায় করোনা ইউনিট চালু করা যায়নি ইউএসটিসিতে

0
158

নিজস্ব প্রতিবেদক :
চট্টগ্রাম নগরীর ফয়’স লেক এলাকার ইউএসটিসি’র বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল হাসপাতালের করোনা ইউনিটের জন্য চিকিৎসক পাওয়া যাচ্ছে না। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ২৫ জন চিকিৎসককে সাক্ষাতের জন্য ডাকলেও সাড়া দিয়েছেন মাত্র ৬ জন। বাকি ১৯ জন চিকিৎসক করোনা ইউনিটে চিকিৎসা দিতে পারবেন না বলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে দিয়েছেন।
চিকিৎসক না পাওয়ায় উদ্বোধনের দুই দিন পরও করোনা ইউনিট চালু করতে পারেনি বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। মঙ্গলবার দুপুরে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে হাসপাতালটির করোনা ইউনিটের উদ্বোধন করেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।
জানতে চাইলে বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক ডা. মো. কামরুল হাসান সুপ্রভাতকে বলেন, আমরা ২৫ জন চিকিৎসককে করোনা ইউনিটের জন্য এপয়েনমেন্ট (সাক্ষাৎকার) দিয়েছিলাম। কিন্তু ১৯ জন চিকিৎসক সাক্ষাতকারে আসেনি। তারা করোনা ইউনিটে চিকিৎসা দিতে পারবে না বলে জানিয়ে দিয়েছে।
কেন চিকিৎসকরা চিকিৎসা দিতে নারাজ, উত্তরে তিনি বলেন, তাদের পরিবার নাকি বাধা দিচ্ছে। পরিবার নাকি জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চিকিৎসা না দিতে বলেছেন। তাই তারা করোনা চিকিৎসা দিতে রাজি হচ্ছেন না।
জানা গেছে, বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ৭০টি আইসোলেশন শয্যা রয়েছে। এছাড়া ২৭টি এইচডিইউ ও ৩টি আইসিইউ শয্যা রয়েছে। ১০০ শয্যার বিপরীতে হাসপাতালটিতে এখন মাত্র ৬ জন চিকিৎসক ও ১৮ জন নার্স রয়েছে। ৬ জন চিকিৎসক ও ১৮ জন নার্স দিয়ে ১০০ শয্যার করোনা ইউনিট কীভাবে পরিচালনা করা হবে? বঙ্গবন্ধু মেমোরিয়াল হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক ডা. মো. কামরুল হাসান এই প্রশ্নের উত্তরে বলেন, ‘আমরা চিকিৎসকদের রাজি করানোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। তারা রাজি না হলে আমরা হাসপাতালের অন্য চিকিৎসকদের দ্বারস্থ হবো।’
করোনা ইউনিটে কখন চিকিৎসাসেবা চালু হবে? এর উত্তরে তিনি বলেন, আমরা দুই একদিনের মধ্যে চালু করার চেষ্টা করছি। আপাততে যেসব চিকিৎসক, নার্স রয়েছে তাদের দিয়ে আমরা চিকিৎসা কার্যক্রম শুরু করবো।
জানা গেছে, হাসপাতালটির করোনা ইউনিটে পুলিশ সদস্যদের অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। শয্যা খালি থাকা সাপেক্ষে সাধারণ রোগীদের চিকিৎসা দেওয়া হবে।