চিটাগাং চেম্বার, জেটরো ও জাপান বাংলাদেশ চেম্বারের মতবিনিময়

0
44

দি চিটাগাং চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (সিসিসিআই), জাপান এক্সটার্নাল ট্রেড অর্গানাইজেশন (ঔঊঞজঙ), ঢাকা এবং জাপান-বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স ইন্ডাস্ট্রি (জেবিসিসিআই)’র এক মতবিনিময় সভা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে গত ৪ জুন অনুষ্ঠিত হয়।
বাণিজ্যিক সম্পর্কের রোডম্যাপ প্রণয়নে ‘জাপান-বাংলাদেশ বন্ধুত্বের ৫০ বছর পূর্তি : আগামী এক দশকের পরিকল্পনা’ শীর্ষক যৌথ প্রকল্প চালুর সম্ভাব্যতা আলোচনার লক্ষ্যে অনুষ্ঠিত এ সভায় চিটাগাং চেম্বার প্রেসিডেন্ট মাহবুবুল আলমের সভাপতিত্বে পরিচালকদ্বয় শাহরিয়ার জাহান ও সৈয়দ মোহাম্মদ তানভীর, জেটরো’র ঢাকাস্থ কান্ট্রি রিপ্রেজেনটেটিভ ও জেবিসিসিআই প্রেসিডেন্ট ইউজি অ্যান্ডো, জেবিসিসিআই ভাইস প্রেসিডেন্ট শরিফুল আলম ও সেক্রেটারি তারেক ভূইয়া (জুন), চিটাগাং চেম্বার সেক্রেটারি ইনচার্জ প্রকৌশলী মোহাম্মদ ফারুক এবং বাংলাদেশ সেন্টার অব এক্সিলেন্স (বিসিই) এর প্রধান নির্বাহী ওয়াসফি তামিম এতে অংশগ্রহণ করেন।
চেম্বার প্রেসিডেন্ট মাহবুবুল আলম বক্তব্যের শুরুতে বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে দীর্ঘকাল যাবৎ অকৃত্রিম বন্ধু রাষ্ট্র হিসেবে অবদান রেখে আসায় জাপান সরকারের প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন এবং জেটরো ও জেবিসিসিআই প্রতিনিধিবৃন্দকে মতবিনিময়ে অংশগ্রহণের জন্য ধন্যবাদ জানান।
রাজধানী ঢাকার অদূরে নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে শুধুমাত্র জাপানি উদ্যোক্তাদের জন্য নির্মাণাধীন বিশেষায়িত অর্থনৈতিক অঞ্চল ও বিগ-বি উদ্যোগের কথা উল্লেখ করে বাংলাদেশ সরকারের কাছে জাপানের গুরুত্ব সর্বাধিক বলে মাহবুবুল আলম মন্তব্য করেন। চেম্বার প্রেসিডেন্ট ২০১০ সালে টোকিওতে চিটাগাং চেম্বার কর্তৃক ইনভেস্টমেন্ট অ্যান্ড ট্রেড প্রমোশন সেন্টার স্থাপন এবং ২০১৯ এ জাপানে বাংলাদেশ জাপান চেম্বারের সাথে স্বাক্ষরিত সমঝোতা চুক্তি সম্পর্কে উল্লেখ করেন।
তিনি দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য উন্নয়ন ও বিনিয়োগ বৃদ্ধির লক্ষ্যে জেটরো ও জেবিসিসিআই এর সাথেও একটি সমঝোতা স্বাক্ষরের পাশাপাশি এর সার্বিক নির্দেশনা প্রদানে উভয় দেশের বেসরকারি খাত, দূতাবাস ও ইকোনোমিক উইংস্ এর সমন্বয়ে একটি ওয়ার্কিং কমিটি গঠনের প্রস্তাব রাখেন।
বাংলাদেশের জেটরো কান্ট্রি রিপ্রেজেন্টিটিভ ও জেবিসিসিআই প্রেসিডেন্ট ইউজি অ্যান্ডো জাপানি ব্যবসায়ীরা বাংলাদেশের বাজারকে অত্যন্ত সম্ভাবনাময় বিবেচনা করেন এবং এদেশে বিনিয়োগে আগ্রহী বলে জানান। তিনি বৈদেশিক বিনিয়োগের পথে বাধাসমূহ দূরীকরণ ও প্রয়োজনীয় নীতিমালা প্রণয়নসহ ব্যবসা পরিবেশ উন্নতকরণে সংশ্লিষ্টদের সাথে আলোচনায় চিটাগাং চেম্বার সভাপতির সহায়তা কামনা করেন।
জেবিসিসিআই ভাইস প্রেসিডেন্ট শরিফুল আলম বলেন, পারস্পরিক সম্পর্ক বৃদ্ধি ও এফডিআই আকর্ষণের জন্য সরাসরি কানেক্টিভিটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। যদিও ঢাকা-টোকিও বাংলাদেশ বিমানের একটি সরাসরি ফ্লাইট রয়েছে কিন্তু সে দেশের চাহিদা পূরণের সক্ষমতা অর্জন করতে এ সেবার মান বৃদ্ধি করা সময়ের দাবি। বিজ্ঞপ্তি