কোহলিদের অনুশীলনের জন্য খোঁজ চলছে নিরাপদ জায়গার!

0
42

সুপ্রভাত ক্রীড়া ডেস্ক :
শ্রীলঙ্কা প্র্যাকটিস শুরু করে দিয়েছে। সোমবার থেকে ট্রেনিংয়ে নেমে পড়লো অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট টিমও। বিরাট কোহলি, রোহিত শর্মারা কবে থেকে ট্রেনিং শুরু করবেন, সেটা এখনই বলা যাচ্ছে না। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের ক্রিকেট অপারেশন টিম এটা নিয়ে কাজ শুরু করলেও, বোর্ডের তরফ থেকে এখনই চূড়ান্ত করে কিছু জানানো হচ্ছে না। তবে কানাঘুষো শোনা যাচ্ছে, জুনের শেষেই চুক্তিবদ্ধ ক্রিকেটারদের অনুশীলনে ফেরাতে চায় বোর্ড।
দেশের মধ্যে বিমান ব্যবস্থা চালু হলেও, পরিস্থিতি একেবারেই স্বাভাবিক হয়নি। তাছাড়া এক-একটা রাজ্যে এক-এক রকমের নিয়ম। মাঝে শোনা যাচ্ছিল, হিমাচল প্রদেশে কিংবা এনসিএ-তে বিরাটদের শিবির হতে পারে। বোর্ডের তরফ থেকে জানিয়ে দেওয়া হল, কেন্দ্র চূড়ান্ত হয়নি। বোর্ডের এক শীর্ষকর্তা সোমবার বলেছিলেন, ‘পুরো ব্যাপারটা নিয়ে আমাদের টিম কাজ করছে। কোথায়, কবে ক্যাম্প শুরু হবে, তা নিয়ে এখনই কিছু বলা সম্ভব নয়। এটা ঠিক যে দেশের মধ্যে বিমান চালু হয়েছে। কিন্তু শুধু তাতে সমস্যা মিটবে না। প্রথমত, আমাদের এমন একটা জায়গা খুঁজে বের করতে হবে, যা সম্পূর্ণ নিরাপদ। যেখানে ক্রিকেটারদের ঝুঁকি থাকবে না। তাছাড়া ক্রিকেটারদের থাকার জন্য ভাল হোটেল প্রয়োজন। আরও একটা ব্যাপার মাথায় রাখতে হচ্ছে, এক একটা রাজ্যে কিন্তু আলাদা নিয়ম রয়েছে। ট্রেনিং সংক্রান্ত ব্যাপার নিয়ে এখন চূড়ান্ত করে কিছু বলা সম্ভব নয়। আরও কিছুদিন সময় লাগবে।’
জুলাইয়ে বিরাটদের শ্রীলঙ্কা সফর রয়েছে। তা নিয়েও চূড়ান্ত কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি। একইরকম অনিশ্চয়তা রয়েছে আইপিএল নিয়েও। বলা হচ্ছে, অক্টোবর-নভেম্বরে যদি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ না হয়, তাহলে ওই সময় ভারতীয় বোর্ড আইপিএল করতে পারে। ওই কর্তা পরিষ্কার জানিয়ে দিলেন, আইপিএল নিয়েও চূড়ান্ত কিছু হয়নি। তাছাড়া আইসিসি এখনও সরকারিভাবে জানায়নি যে বিশ্বকাপ বাতিল করা হচ্ছে। ¯্রফে অনুমান করা হচ্ছে, এবার বিশ্বকাপ আয়োজন সম্ভব নয়। ওই বোর্ড কর্তা বলছিলেন, ‘আমরাও মিডিয়াতে এই সব খবর দেখছি। প্রথমত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ যে হচ্ছে না, সেটা এখনও আইসিসি কিছু বলেনি। ওই সময় আইপিএল করা সম্ভব কি না, সেটা এই পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে পক্ষে বলা সম্ভব নয়।’
শোনা গেল, এবার ঘরোয়া ক্রিকেটেও নাকি ফরম্যাট বদলে যেতে পারে। আর সেটা করোনার জন্যই। বোর্ড চেষ্টা করছে যাতে ট্র্যাভেল কমিয়ে দেওয়া যায়। সেক্ষেত্রে রনজি ট্রফিতে গ্রুপ পর্বে ম্যাচের সংখ্যা কমিয়ে ফেলা হতে পারে বলে শোনা যাচ্ছে। গত বার এলিট টিমগুলো গ্রপ পর্বে আটটা করে ম্যাচ খেলছিল। এবার সেটা কমিয়ে চারে নেমে আসতে পারে। বদল হতে পারে বিজয় হাজারে ট্রফির ফর্ম্যাটও। জোনাল ফর্ম্যাটও ফিরে আসতে পারে।
খবর : কলকাতাটোয়েন্টিফোর’র।