বিশ্বকাপ ফাইনালে দু’বার টস করেন ধোনি

0
129

সুপ্রভাত ক্রীড়া ডেস্ক :
ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে শ্রীলঙ্কাকে হারিয়ে বিশ্বকাপ জিতেছিল ভারত। অধিনায়ক মহেন্দ্র সিংহ ধোনির নেতৃত্বে। কিন্তু ২০১১ সালে ২ এপ্রিল টসের সময় এক অদ্ভুত ঘটনা ঘটে। ধোনির অনুরোধে দু’বার টস হয় ফাইনালে। প্রথম বার কুমার সঙ্গকারার আবেদন শুনতে পাননি ধোনি। তাই দ্বিতীয় বার টস করার অনুরোধ করেন প্রাক্তন ভারতীয় অধিনায়ক।
আর অশ্বিনের সঙ্গে ইনস্টাগ্রাম লাইভ চ্যাটে প্রাক্তন শ্রীলঙ্কা অধিনায়ক বলেন, ‘প্রচুর সমর্থক এসেছিলেন ফাইনালে। এই দৃশ্য শ্রীলঙ্কায় কখনও দেখা যায় না। এক বার ইডেনে এ রকম হয়েছিল। প্রথম স্লিপের ফিল্ডারের কথা শুনতে পাচ্ছিলাম না। ওয়াংখেড়েতে টসের সময় থেকেই কিছু শোনা যাচ্ছিল না। আমি হেড কল করেছিলাম। মাহি আমাকে বলে, তুমি টেল কল করোনি তো? ম্যাচ রেফারি বলেছিলেন, আমিই টস জিতেছি। কিন্তু ধোনি বলেছিল, ও শুনতে পায়নি। ফের টস হয়। মাহি নিজেই অনুরোধ করে।’ সাঙ্গা আরও বলেন, ‘দ্বিতীয় বারও আমি হেড কল করি। টস জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিই। ভারত টস জিতলে নিশ্চয়ই ব্যাট করত।’ ধোনি টস হেরেছিলেন। কিন্তু ম্যাচ হারেননি। তার অপরাজিত ৯১ রানের সুবাদে দ্বিতীয় বারের মতো বিশ্বকাপ জেতে ভারত।
ধাওয়ানের জবাব : আইসিসির প্রতিযোগিতায় সব সময়েই দুর্দান্ত ছন্দে থাকেন শিখর ধাওয়ান। ভারতের বাঁ হাতি ওপেনার ইউটিউব চ্যাটে স্বদেশীয় মহিলা ক্রিকেটার জেমাইমা রদ্রিগেস ও স্মৃতি মন্ধানাকে বললেন, ‘দ্বিপাক্ষিক সিরিজের মেজাজের মতোই আইসিসির প্রতিযোগিতায় খেলি। সমস্যা হয় না।’ ধাওয়ান ২০১৫ সালের ভারত বনাম পাকিস্তান ম্যাচের একটি ঘটনা শুনিয়ে বলেন, ‘মাঠে নামার সময়ে জনৈক দর্শক বলেন, তুমি ১৫ রান করেই আউট হবে। কিন্তু আমি ৭৩ রান করি। পরে সেই দর্শকও হাত মিলিয়েছিলেন।’
খবর : আনন্দবাজার’র।