বিয়ে লুকিয়ে অভিনেত্রীর সঙ্গে সম্পর্ক তৈরি করেছিলেন নওয়াজ

0
75

সুপ্রভাত ডেস্ক :
বলিউড অভিনেতা নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকিকে তার স্ত্রী আলিয়া সিদ্দিকি আইনি নোটিশ পাঠিয়েছেন। আলিয়া জানিয়েছেন নওয়াজ তার উপর মানসিক অত্যাচার করতেন। ১০ বছরের বৈবাহিক জীবন সুখের ছিল না বলেই ডিভোর্সের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।
বেশ কয়েক বছর আগে নওয়াজ জানিয়েছিলেন অভিনেত্রী নীহারিকা সিং এর সঙ্গে তিনি সম্পর্কে ছিলেন। নিজের বায়োগ্রাফি ‘অ্যান অডিনারি লাইফ’ বইতে তিনি নীহারিকা সিং এর সঙ্গে সম্পর্কের কথা লিখেছিলেন। এক বছর নাকি নীহারিকার সঙ্গে সম্পর্কে ছিলেন নওয়াজ। এর কিছুদিন পরেই নীহারিকা জানিয়েছিলেন, তার অনুমতি ছাড়াই তার তার নাম উল্লেখ করেছেন নওয়াজ। এক বছর না। মাত্র কয়েক মাস তারা সম্পর্কে ছিলেন। নীহারিকা এও জানিয়েছিলেন, নওয়াজ যে বিবাহিত এবং তার দুই সন্তান ও আছে তার সে সম্পর্কে কোনো ধারণাই ছিল না।
প্রসঙ্গত, নওয়াজের স্ত্রী আলিয়ার অভিযোগ, অভিনেতার দাদা তাকে মারধরও করতো। একসময় মুম্বইয়ের বাড়িতে আলিয়া থাকতেন নওয়াজ এবং তার মা দাদা ও বৌদির সঙ্গে। আলিয়া জানিয়েছেন নওয়াজ তার গায়ে হাত না তুললেও নওয়াজের দাদা প্রায়ই তাকে মারধর করতেন। আলিয়া জানিয়েছেন, নওয়াজের পরিবারে এটা আগেও হয়েছে। বাড়ির বউদের উপর তারা নাকি এভাবেই অত্যাচার করে। যার জন্য তাদের পরিবারের উপর রয়েছে সাতটি মামলার দায়। আলিয়ার কথায়, নওয়াজউদ্দিন অভিনেতা হিসেবে বড় মাপের হলেও, মানুষ হিসেবে তা কেন হতে পারেননি!
নিজের সন্তানদের সঙ্গে শেষ কবে দেখা করেছেন তাও হয়তো তার মনে নেই। আর তাই সন্তানদেরকে নিজের কাছেই রাখতে চান আলিয়া। আলিয়া বলছেন, ‘ওদের আমি বড় করেছি। তাই ওরা আমার কাছেই থাকবে।’ উল্লেখ্য, ইমেইল ও হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে নওয়াজকে আইনি নোটিশ পাঠানো হয়েছে। কিন্তু তিনি এখন পর্যন্ত কোনো জবাব দেননি। এই মুহূর্তে উত্তরপ্রদেশের মুজাফফরপুর এর বাড়িতে কোয়ারেন্টাইনএ রয়েছেন নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকি।
খবর : কলকাতাটোয়েন্টিফোর’র।