দুস্থ ও কর্মহীন পরিবারের জন্য সেনাবাহিনীর ‘১ মিনিটের বাজার’

0
83

‘চলতি মাসে অন্তত ২০ হাজার মানুষ এই সেবার আওতায় আসবে’

নিজস্ব প্রতিবেদক :
পুরোপুরিভাবে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করে পরিকল্পিতভাবে নগরীতে চালু হলো বাংলাদেশ সেনাবাহিনী নিয়ন্ত্রিত ‘১ মিনিটের বাজার’। আগামী একমাস প্রতিদিন তালিকাভুক্ত প্রায় ১ হাজার পরিবারকে ফ্রি সবজিসহ নিত্যপণ্য দেবে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। ধীরে ধীরে এ বাজার যাবে নগরীর প্রতিটি এলাকায়। চলতি মাসে অন্তত ২০ হাজার মানুষ এই সেবার আওতায় আসবে।
বুধবার বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ৩৪ ইঞ্জিনিয়ার কন্সট্রাকশন বিগ্রেডের উদ্যোগে ওয়াসা মোড়ের জমিয়তুল ফালাহ মসজিদ চত্বরে চালু হওয়া ‘১ মিনিটের বাজারে’ সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত ১ ঘণ্টা সময়ের মধ্যে তালিকাভুক্ত প্রায় ১ হাজার অসহায় মানুষ বিনামূল্যে তাদের পছন্দনীয় বাজার নিয়ে গেছে।
করোনা ভাইরাস সংক্রমণের এই দুঃসময়ে এমন সহযোগিতার পাশাপাশি ঝুঁকিমুক্ত বাজার ব্যবস্থাপনায় এক অনন্য নজির স্থাপন করলো বাংলাদেশ সেনাবাহিনী।
সেনাবাহিনীর কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আহমেদ তানভির মাজহার সিদ্দিকী বলেন, ‘করোনা ভাইরাসের ঝুঁকি এড়াতে ও গ্রামীণ অর্থনীতিকে সচল রাখতে এই উদ্যোগ। মূলত প্রান্তিক চাষী এবং কৃষকদের কাছ থেকে কেনা হচ্ছে এসব নিত্যপ্রয়োজনীয় শাকসবজিসহ অন্যান্য মালামাল। ধীরে ধীরে এটি চট্টগ্রামের প্রতিটি এলাকায় যাবে। চলতি মাসে অন্তত ২০ হাজার মানুষ এই সেবা আওতায় আসবে।’
জানা যায়, করোনা ভাইরাস সংক্রমণ রোধে বাজারে ঢুকতেই সবাইকে সাবান দিয়ে হাত দিয়ে জীবাণুমুক্ত করা হয়। এরপর প্রথম টেবিলে রাখা ছিল মাস্ক এবং বাজারের ব্যাগ। বাকি টেবিলগুলোতে সাজানো ছিল নানা ধরনের সবজি। বাজারে আসা অসহায় মানুষগুলো মাস্ক পরে তাদের পছন্দনীয় সবজি ভরে নিয়েছেন বাজারের ব্যাগে।
সেনাবাহিনীর কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আহমেদ তানভির মাজহার সিদ্দিকী বলেন, ‘এটি আমাদের কোনো ত্রাণ কার্যক্রম নয়। আমরা একটা মডেল দাঁড় করাতে চাচ্ছি যাতে নি¤œ আয়ের মানুষেরা এসে বাজার করতে পারে। যে এলাকার আমরা তালিকা করছি এর আশপাশে বাজার করার চেষ্টা করছি। তালিকা তৈরি করে তাদের একটি টোকেন দেওয়া হচ্ছে। বাজারে ঢুকতে তারা সেই টোকেন দেখিয়ে পছন্দের সবজিসহ নিত্যপণ্য একেবারে বিনামূল্যে নিয়ে যেতে পারবেন।’