ধূমপান না করায় সম্মাননা পাচ্ছেন চার বিশিষ্ট ব্যক্তি

নিজস্ব প্রতিবেদক

তামাকজাতপণ্য ব্যবহারকারী দেশসমূহের মধ্যে বাংলাদেশ অন্যতম। পরিসংখ্যান অনুসারে বাংলাদেশের ৪৩ শতাংশ প্রায় ৪ কোটি ১৩ লাখ প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ বিড়ি, সিগারেট এবং ধোঁয়াবিহীন তামাক সেবন করে। তবে খ্যাতির শীর্ষে আরোহণ করেও সমাজের কিছু ব্যক্তি ধূমপান থেকে বিরত থেকে অন্যদের জন্য উদাহারণ সৃষ্টি করেন। ধূমপান না করায় বাণিজ্যিক রাজধানী চট্টগ্রামের তেমনি চারজন বিশিষ্ট ব্যক্তিকে সম্মাননা দেওয়া হচ্ছে। অধুমপায়ী চার ব্যক্তিত্ব হলেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) উপাচার্য প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী, চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি ও রূপালী ব্যাংকের পরিচালক আবু সুফিয়ান এবং অধ্যাপক ডা. একিউএম সিরাজুল ইসলাম। তামাক বিরোধী সাংবাদিকদের জোট ‘আত্মা’ ও উন্নয়ন সংগঠন ‘ইপসা’র পক্ষ থেকে এ সম্মাননা দেওয়া হবে।
ইপসার তামাক নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রম কর্মকর্তা মো. ওমর শাহেদ সুপ্রভাত বাংলাদেশকে বলেন, তামাক নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রমকে আরো শক্তিশালী করতে সর্বস্তরের মানুষের সহযোগিতা প্রয়োজন। এ লক্ষ্যে ‘আত্মা’ ও ‘ইপসা’র আয়োজনে আগামী শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় চসিকের কেবি আব্দুচ ছত্তার মিলনায়তনে ‘তামাকমুক্ত চট্টগ্রাম শহর গড়তে আমাদের করণীয় শীর্ষক’ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হবে। সভায় অধুমপায়ী চার বিশিষ্ট ব্যক্তিকে সম্মাননা প্রদান প্রদান করা হবে।’
মো. ওমর শাহেদ জানান, ‘তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন বাস্তবায়নে ইপসা ২০০৯ সালে থেকে চসিকের অন্তর্ভুক্ত এলাকা তামাকমুক্ত করতে সহায়তা করে আসছে এবং তামাক বিরোধী সাংবাদিকদের জোট ‘আত্মা’ এ কার্যক্রমের অন্যতম অংশীদার।