জার্মানিকে নিয়ন্ত্রণ করছে রাশিয়া: ট্রাম্প

সুপ্রভাত বহির্বিশ্ব ডেস্ক

রাশিয়া গ্যাস সরবরাহ করে জার্মানিকে নিয়ন্ত্রণে রাখছে বলে ব্রাসেলসে নেটো নেতাদের এক সম্মেলনে যোগ দিতে গিয়ে বলেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। রাশিয়ার কাছে জার্মানি বন্দি হয়ে আছে বলে অভিযোগ করেন তিনি। ব্রাসেলসে নেটো প্রধান জেনস স্টলটেনবার্গের সঙ্গে এক আলোচনায় তিনি বলেন, রাশিয়া ‘পুরোপুরি জার্মানিকে নিয়ন্ত্রণ করছে।’ এটি নেটোর জন্য একটি খারাপ ব্যাপার। খবর বিডিনিউজের।
ট্রাম্প জানান, জার্মানির গ্যাসের ৭০ শতাংশই রাশিয়া থেকে আমদানি হয়; গ্যাস আমদানির সর্বসামপ্রতিক সরকারি পরিসংখ্যান হচ্ছে ৫০% থেকে ৭৫%।
রাশিয়ার এ প্রাকৃতিক গ্যাস আমদানিকেই জার্মানির জন্য নিরাপত্তা উদ্বেগ বলে বর্ণনা করেন তিনি।
তাছাড়া, ইইউ দেশগুলোতে রাশিয়ার গ্যাস সরবরাহ বাড়ানোর জন্য একটি নতুন বাল্টিক সি পাইপলাইন প্রজেক্টে রাজনৈতিক সমর্থন দিয়ে জার্মানি রাশিয়ার ‘বন্দি’তে পরিণত হয়েছে বলে তিনি অভিযোগ করেন। নেটো অভিযানের জন্য জার্মানি যথেষ্ট অর্থ দিচ্ছে না বলেও অভিযোগ করেন ট্রাম্প।
তিনি বলেন, ‘গ্যাসের জন্য জার্মানি কোটি কোটি ডলার রাশিয়াকে দিচ্ছে অথচ নেটোর প্রতিরক্ষা ব্যয় মেটাতে তারা বকেয়া অর্থ পরিশোধ করছে না।’
ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) সবচেয়ে বড় অর্থনীতির দেশ হওয়ার পরও নেটো অভিযানে তহবিল পরিশোধে ব্যর্থতার জন্য জার্মানিকে দীর্ঘদিন থেকেই দোষারোপ করে আসছে মার্কিন প্রশাসন।
বুধবার স্টলটেনবার্গের সঙ্গে বৈঠকে ট্রাম্প প্রশ্ন করে বলেন, জার্মানির ৭০ শতাংশই নিয়ন্ত্রিত হচ্ছে রাশিয়ার প্রাকৃতিক গ্যাস দিয়ে। তাহলে বলেন এটি কি ঠিক হচ্ছে?
‘৬০ থেকে ৭০ শতাংশ জ্বালানি রাশিয়ার কাছ থেকে পাওয়ার পরও জার্মানির আবার নতুন পাইপলাইন প্রজেক্ট করাটা কি ঠিক? আমি এটি ঠিক মনে করি না। কারণ এটি নেটোর জন্য খুবই খারাপ ব্যাপার।’
নর্ড স্ট্রিম-২ নামক নতুন বাল্টিক সি পাইপলাইন প্রজেক্টে জার্মানির সমর্থন নিয়ে তীব্র সমালোচনা করেছে পোল্যান্ড ও অন্যান্য ইউরোপীয় দেশগুলোও।
ট্রাম্প অভিযোগ করে বলেন, জার্মানি কেবল তার অর্থনীতির মাত্র ১ শতাংশের কিছু বেশি অর্থ নেটো প্রতিরক্ষার জন্য ব্যয় করছে যেখানে যুক্তরাষ্ট্র ব্যয় করছে ৪ দশমিক ২ শতাংশ।
তিনি বলেন, ‘আমরা জার্মানিকে সুরক্ষা দিচ্ছি, ফ্রান্সকে সুরক্ষা দিচ্ছি। সব দেশকেই সুরক্ষা দিচ্ছি। আর এসব দেশই বাইরে গিয়ে রাশিয়ার সঙ্গে জ্বালানি চুক্তি করে সেখানে কোটি কোটি ডলার ঢালছে… এটা আমি একেবারেই ঠিক মনে করি না।’
ট্রাম্প আরো বলেন, পরিবেশ রক্ষার জন্য জার্মানি কয়লা এবং পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রগুলো বন্ধ করে দিয়ে ইউরোপের অন্যান্য দেশগুলোর মত রাশিয়ার গ্যাসের ওপর বেশিমাত্রায় নির্ভরশীল হয়ে পড়েছে।