গণভবনে আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভা

চট্টগ্রাম বিভাগ থেকে বক্তব্যের সুযোগ পেলেন মেয়র নাছির

নিজস্ব প্রতিবেদক

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় বর্ধিত সভায় চট্টগ্রাম বিভাগ থেকে বক্তব্য দেওয়ার সুযোগ পেয়েছেন সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। গতকাল শনিবার গণভবনে আয়োজিত আওয়ামী লীগের বিশেষ এ বর্ধিত সভায় দেশের আটটি বিভাগ থেকে সংগঠনটির আটজন নেতাকে বক্তব্য রাখার সুযোগ দেওয়া হয়।
এরমধ্যে চট্টগ্রাম বিভাগের আওয়ামী লীগের ১৪টি সাংগঠনিক জেলা থেকে চট্টগ্রাম মহানগর শাখার সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীনকে বক্তব্য দেওয়ার জন্য নির্বাচিত করা হয়।
চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির বর্ধিত সভার মঞ্চে বক্তব্য দিতে উঠে পা ছুঁয়ে সালাম করেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনাকে। এরপর তিনি বক্তব্য রাখেন।
আ জ ম নাছির তাঁর বক্তব্যে চট্টগ্রামের উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রীর ভূমিকার প্রশংসা করে বলেন, ২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বর সংসদ নির্বাচনের আগে চট্টগ্রামে নির্বাচনী সভায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী চট্টগ্রামবাসীকে বলেছিলেন, নৌকায় ভোট দিলে চট্টগ্রামের উন্নয়নের দায়িত্ব তিনি নিজের কাঁধে তুলে নেবেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দায়িত্ব গ্রহণের পর চট্টগ্রামের উন্নয়নে নানা পদক্ষেপ নিয়েছেন। এজন্য চট্টগ্রামবাসী প্রধানমন্ত্রীর কাছে কৃতজ্ঞ।
এছাড়া আ জ ম নাছির তাঁর বক্তব্যে আগামী সংসদ নির্বাচনে চট্টগ্রামের আসনগুলোতে প্রধানমন্ত্রী যাকে মনোনয়ন দেবেন তাকে বিজয়ী করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।
চট্টগ্রাম বিভাগ থেকে আ জ ম নাছির বক্তব্য রাখার সুযোগ পাওয়ায় তাঁকে ‘সৌভাগ্যবান’ বলছেন সভায় অংশ নেওয়া চট্টগ্রামের আওয়ামী লীগ নেতারা।
এ প্রসঙ্গে আ জ ম নাছির উদ্দীন গতকাল সন্ধ্যায় সুপ্রভাতকে বলেন, ‘চট্টগ্রাম বিভাগের আওয়ামী লীগের ১৪টি সাংগঠনিক জেলা থেকে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বক্তব্য দেওয়ার জন্য আমাকে নির্বাচিত করেছেন। যা সৌভাগ্যের ব্যাপার। আমি বক্তব্যে চট্টগ্রামের উন্নয়নে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নানা পদক্ষেপের প্রশংসা করে চট্টগ্রামবাসীর পক্ষ থেকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছি।’
২০১৬ সালের ২২ অক্টোবর আওয়ামী লীগের ২০তম সম্মেলনে চট্টগ্রাম বিভাগ থেকে বক্তব্য দেওয়ার সুযোগ পেয়েছিলেন উত্তর জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এম এ সালাম।

গতকাল বর্ধিত সভায় চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী, উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নুরুল আলম চৌধুরী, দক্ষিণ জেলার সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমেদ, উত্তর জেলার সাধারণ সম্পাদক এম এ সালাম ও দক্ষিণ জেলার সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান অংশ নেন। এছাড়া ১৫টি উপজেলা এবং নগরীর ১৫টি থানার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক সভায় যোগ দেন। চট্টগ্রামের ১২ জন সংসদ সদস্যও সভায় অংশ নেন।