আর্জেন্টিনাকে রুখতে প্রস্তুত ক্রোয়েশিয়া

দেবজ্যোতি চক্রবর্তী

দীর্ঘ ২০ বছর পর বিশ্বকাপের মঞ্চে মুখোমুখি হতে যাচ্ছে আর্জেন্টিনা-ক্রোয়েশিয়া। ১৯৯৮ বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বের সেই ম্যাচটিতে হেরেছিল ক্রোয়েশিয়া। তবে এই দীর্ঘ সময়ে অনেক পরিণত হয়েছে ক্রোয়েশিয়া। তাদের বর্তমান দলে আছে রাকিটিচ-মডরিচ-বুদওয়েসারদের মতো খেলোয়াড়। তাই আর্জেন্টিনার বিরুদ্ধে জয়ের স্বপ্ন দেখতেই পারে ক্রোয়াটরা।
বিশ্বকাপের অন্যতম ফেভারিট দল আর্জেন্টিনা প্রথম ম্যাচ ড্র করে এখন খাদের কিনারায়। আজ ক্রোয়েশিয়ার বিরুদ্ধে ম্যাচে জয়ের বিকল্প নেই তাদের। প্রথম ম্যাচে আইসল্যান্ড রুখে দিয়েছে তাদের। দ্বিতীয় পর্বে যেতে হলে দুটি ম্যাচে জিততে হবে। আইসল্যান্ডের সাথে আর্জেন্টিনার রক্ষণভাগের দুর্বলতা চোখে পড়েছে। প্রতিবারের মতো এবারও তাদের এই বিভাগটি একেবারে ছন্নছাড়া। আগের তিন বিশ্বকাপে এই একটি জায়গায় ব্যর্থতার কারণে বিদায় নিতে হয়েছে। এবারও যাতে এমনটি না হয় তাই কোচ সাম্পাওলিকে রক্ষণ গুছিয়ে আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলতে হবে ক্রোয়েশিয়ার সঙ্গে।
আক্রমণভাগে থাকা মেসিকে রসদ কেউই যোগাতে পারছে না ঠিকমতো। বামপ্রান্তে খেলা ডি মারিয়াও নিজেকে মেলে ধরতে পারছেন না। আর এরমধ্যে গত ম্যাচে মেসির পেনাল্টি মিস করার হতাশাও বাড়তি চাপ হিসেবে আছে আর্জেন্টিনার ঘাড়ে। মেসিকে বারবার প্রতিপক্ষের রক্ষণভাগের খেলোয়াড়রা ঘিরে রাখতে দেখা গেছে। তাই তার দিয়ে আক্রমণ না করিয়ে অপরপ্রান্ত থেকে হিগুয়াইন-আগুয়েরোদের কাজে লাগাতে হবে। আইসল্যান্ডের বিরুদ্ধে গোল এসেছিল আগুয়েরোর পা থেকে। আজ ক্রোয়েশিয়ার বিরুদ্ধে খেলতে হলে মাঝমাঠ থেকে বল গুছিয়ে নিয়ে আক্রমণ করতে হবে, সঙ্গে খেলতে হবে লম্বা পাস।
আর্জেন্টিনার কোচ সাম্পাওলি দলে পরিবর্তন আনবেন বলে জানিয়েছেন গত মঙ্গলবার। দুই উইংয়ে ও ডিফেন্ডে পরিবর্তন আনতে পারেন তিনি। ডি মারিয়া ও রোহোকে হয়তো প্রথম একাদশে খেলাবেন না তিনি। তার এই কৌশল কতটুকু কাজে লাগে তা মাঠেই বোঝা যাবে।
ক্রোয়েশিয়া এই গ্রুপ থেকে একটি জয় নিয়ে ফুরফুরে আছে। গত ম্যাচে তারা লম্বা পাস খেলে আক্রমণের ছক কষেছিল। দুই তারকা মডরিচ ও রাকিটিচকে বেশ ভালো খেলতে দেখা গেছে। মডরিচ পেনাল্টি থেকে গোল করেছিলেন নাইজেরিয়ার বিরুদ্ধে। আর্জেন্টিনার বিরুদ্ধে জয় পেলে তারা দ্বিতীয় রাউন্ডের টিকেট পেয়ে যাবে। তাদের রক্ষণভাগটা বেশ ভালো। তবে মাঝমাঠ থেকে আক্রমণের পরিকল্পনা গুছিয়ে নিতে হবে রাকিটিচদের।
মেসি-আগুয়েরো-হিগুয়াইনদের রুখতে হলে ইস্পাত-দৃঢ় রক্ষণভাগ হতে হবে। তা নাহলে যে কোনো মুহূর্তে খেলার মোড় ঘুরিয়ে দিতে পারেন আর্জেন্টাইন এই ত্রয়ী।
মেসি বাহিনীর বিশ্বকাপে টিকে থাকার লড়াই আজ। আর ক্রোয়েশিয়া যদি জিততে পারে তাহলে দ্বিতীয় বারের মতো বিশ্বকাপের দ্বিতীয় রাউন্ড নিশ্চিত হয়ে যাবে তাদের।
বিশ্বকাপ পরিসংখ্যান
আর্জেন্টিনা বিশ্বকাপে ৭৮ ম্যাচ খেলে জিতেছে ৪২টি, হেরেছে ২১টি ও ড্র করেছে ১৫টি।
ক্রোয়েশিয়া বিশ্বকাপে খেলেছে মাত্র ১৮ ম্যাচ। যার ৯টি জিতেছে, ৭টি হেরেছে ও ২টি ড্র করেছে।
মুখোমুখি
এ পর্যন্ত ফুটবলে চারবার মুখোমুখি হয়েছে দুই দল। যার ২টি জিতেছে আর্জেন্টিনা ও ১টি ক্রোয়েশিয়া। বাকি ম্যাচটি ড্র হয়েছে।
বিশ্বকাপে এটি তাদের দ্বিতীয় সাক্ষাত। প্রথম বার ১-০ তে জয় পেয়েছিল আর্জেন্টিনা।