এমপিও’র দাবিতে সোমবার থেকে আমরণ অনশন

সুপ্রভাত ডেস্ক

মান’লি পেমেন্ট অর্ডারের (এমপিও) বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের দাবিতে আগামী সোমবার থেকে ফের আমরণ অনশন পালন করবে ‘নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক কর্মচারী ফেডারেশন’। গতকাল বুধবার বিকালে এই ঘোষণা দেন ফেডারেশনের সভাপতি গোলাম মাহমুদুন্নবী ডলার। খবর বাংলাট্রিবিউনের।
তিনি বলেন, ‘এমপিওভুক্তির বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের দাবিতে গত ১১ দিন ধরে ঁ ১১ পৃষ্ঠার ১ম কলাম
আমরা অবস’ান কর্মসূচি পালন করছি। এ নিয়ে আমরা ২৮ বার এমপিওভুক্তির দাবিতে আন্দোলন করেছি। আমরা আশা করেছিলাম, ঈদের আগেই এমপিওভুক্ত করা হবে। কিন’ বাস্তবে আমরা সেরকম কোনও অগ্রগতি দেখতে পাচ্ছি না।’
গোলাম মাহমুদুন্নবী ডলার বলেন, ‘তথাকথিত কিছু শিক্ষক নেতা আমাদের নিয়ে অপপ্রচার চালাচ্ছে। আমরা এর তীব্র নিন্দা জানাই।’
তিনি জানান, প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের দাবিতে বৃহস্পতিবার (২১ জুন) সকাল ১০টায় স্পিকার এবং ডেপুটি স্পিকারের মাধ্যমে সব সংসদ সদস্যের কাছে স্মারকলিপি দেওয়া হবে। গত শুক্রবার সকাল ১০টায় রাষ্ট্রপতি বরাবর স্মারকলিপি দেওয়া হবে।
তিনি বলেন, ‘ঈদের ছুটি শেষে আগামী শনিবার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলবে। কিন’ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে প্রশাসনিক কাজ ছাড়া কোনও ক্লাস হবে না। ওই দিন আমরা সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত প্রতীকী অনশন পালন করবো। রোববার দেখবো, আমাদের বিষয়ে অগ্রগতি কী, যদি কোনও সুরাহা না হয়, তাহলে সোমবার থেকে আমরণ অনশন কর্মসূচি পালন করবো আমরা।’
এর আগে দুপুরে মাহমুদুন্নবী বলেন, ‘একজন সাধারণ কর্মকর্তার আশ্বাসে অনশন প্রত্যাহার করায় অসন্তোষ হয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। তবে আমরা এতে শঙ্কিত নই।’
মাহমুদুন্নবী বলেন, গত ৫ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিব সাজ্জাদুল হাসানের প্রতিশ্রুতিতে আমরণ অনশন প্রত্যাহার করে শিক্ষক কর্মচারী ফেডারেশন। এতে অসন’ষ্ট হয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী। কারণ, গত ৯ এপ্রিল শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে গেলে শিক্ষামন্ত্রী আমাদেরকে বাইরে অপেক্ষা করতে বলেন। কিছুক্ষণ পরে লক্ষ্য করি, তিনি গাড়িতে করে বের হচ্ছেন। গাড়ির গ্লাসটা নামিয়ে আমাদেরকে জিজ্ঞেস করেন, ‘আপনারা কারা?’ আমাদের পরিচয় দিলে তিনি বলেন, ‘আপনাদের জন্য কিছু করলেও দোষ, না করলেও দোষ। আপনাদেরকে আমি প্রতিশ্রুতি দেওয়ার পরেও অনশন প্রত্যাহার করলেন না। কিন’ একজন সাধারণ কর্মচারীর আশ্বাসে অনশন ভঙ্গ করলেন। আপনাদের এমপিওভুক্তি কিভাবে হয়, আমি দেখবো। পারলে এমপিওভুক্তি করে দেখান।’
মাহমুদুন্নবী আরও বলেন, ‘শিক্ষামন্ত্রীর প্রতিশ্রুতিতে আমরা সন’ষ্ট নই। তিনি এর আগেও আমাদের ২৬ বার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। কিন’ কোনোবারই বাস্তবায়ন হয়নি। তাই এবার দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আমাদের কর্মসূচি চলবে।’
উল্লেখ্য, এমপিওভুক্তির দাবিতে নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীরা গত বছরের ২৬ ডিসেম্বর থেকে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে লাগাতার কর্মসূচি শুরু করেন। সেসময় নন-এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশনের ডাকে টানা অবস’ান ও অনশনের একপর্যায়ে এ বছরের ৫ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে তার একান্ত সচিব সাজ্জাদুল হাসান সেখানে গিয়ে আশ্বাস দেন। এরপর শিক্ষক-কর্মচারীরা আন্দোলন কর্মসূচি স’গিতের ঘোষণা দেন। কিন’ অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরের যে বাজেট প্রস্তাব করেন, সেখানে নতুন এমপিওভুক্তির বিষয়ে সুস্পষ্টভাবে কিছু বলা হয়নি। এবারের বাজেটে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দুই বিভাগের জন্য ৫৩ হাজার ৫৪ কোটি টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব করা হয়েছে। এটি প্রস্তাবিত জাতীয় বাজেটে খাত ওয়ারি দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বরাদ্দ। বাজেট বরাদ্দে প্রাথমিক বিদ্যালয়, কারিগরি প্রতিষ্ঠান ও অবকাঠামো নির্মাণে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে।