একাদশে ভর্তি

ভর্তি নিশ্চিত করেনি ২২ হাজার শিক্ষার্থী

কাল প্রকাশিত হবে ২য় পর্যায়ের মনোনীতদের তালিকা নগরীর সরকারি কলেজগুলোতে আসন খালি নাই

নিজস্ব প্রতিবেদক

একাদশ শ্রেণির ভর্তিতে ২২ হাজার শিক্ষার্থী কলেজ পেয়েও ভর্তি নিশ্চিত করেনি। এর আগে প্রথম পর্যায়ে ভর্তির আবেদন করেও আড়াই হাজার শিক্ষার্থী কোনো কলেজে ভর্তির জন্য মনোনীত হয়নি। এসব শিক্ষার্থীকে আজকের মধ্যে দ্বিতীয় পর্যায়ে আবেদন করতে হবে। তবে যারা ভর্তি নিশ্চিত করেনি তাদেরকেও নতুন করে আবেদন করতে হবে এবং যারা ভর্তির জন্য মনোনীত হয়নি তাদেরকে পছন্দক্রম পরিবর্তন করতে হবে। একইসাথে ভর্তির আবেদনের বাইরে থাকা প্রায় আট হাজার শিক্ষার্থীও নতুন করে আবেদনের সুযোগ পাচ্ছে।
এদিকে প্রথম পর্যায়ের নিশ্চায়ন শেষে নগরীর ৬ সরকারি কলেজের মধ্যে বাকলিয়া সরকারি কলেজের ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে ১১২টি আসন ছাড়া আর কোনো কলেজে আসন খালি নাই। গত সোমবার ছিল কলেজ ভর্তি নিশ্চায়নের শেষ তারিখ। গতকাল থেকে দ্বিতীয় পর্যায়ের আবেদন শুরু হয়েছে এবং আজ আবেদনের শেষ দিন। আগামীকাল ২১ জুন দ্বিতীয় পর্যায়ে মনোনীতদের এবং স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে মাইগ্রেশনের তালিকা প্রকাশিত হবে। যারা ভর্তি নিশ্চিত করেনি তাদের আবেদন বাতিল হয়ে যাবে জানিয়ে চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডের কলেজ পরিদর্শক মোহাম্মদ জাহেদুল হক বলেন, প্রথম পর্যায়ে মনোনীত হয়ে প্রায় ২২ হাজার শিক্ষার্থী ভর্তি নিশ্চিত করেনি। এসব শিক্ষার্থীকে দ্বিতীয় পর্র্যায়ে ১৫০ টাকা ফি দিয়ে আবারো নতুন করে আবেদন করতে হবে। একইসাথে কলেজ ভর্তিতে আবেদনের বাইরে থাকা প্রায় ৮ হাজার শিক্ষার্থীকেও নতুন করে আবেদন করতে হবে।
তিনি আরো বলেন, প্রথম পর্যায়ে আবেদন করেও প্রায় আড়াই হাজার শিক্ষার্থী কোনো কলেজে ভর্তির জন্য মনোনীত হয়নি। এসব শিক্ষার্থী তাদের পছন্দক্রম পরিবর্তন করে আবেদন করতে পারবে, তবে তাদেরকে কোনো ফি দিতে হবে না।
জানা যায়, অনলাইন ও মোবাইলে এসএমএসের মাধ্যমে ভর্তি প্রক্রিয়ায় এবার ১ লাখ ৮ হাজার শিক্ষার্থী ভর্তির জন্য আবেদন করেছে চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডে। একাদশ শ্রেণির কলেজ ভর্তিতে এসব শিক্ষার্থী গত ১৩ মে থেকে ২৪ মে পর্যন্ত আবেদনের সুযোগ পেয়েছিল। একজন শিক্ষার্থী অনলাইনে সর্বনিম্ন ৫টি ও সর্বোচ্চ ১০টি কলেজ পছন্দের তালিকায় যুক্ত করতে পেরেছে। প্রথম পর্যায়ের মনোনীতদের তালিকা গত ১০ জুন প্রকাশের পর ১৮ জুন পর্যন্ত নিশ্চায়ন করার সুযোগ ছিল।
এদিকে ২য় পর্যায়ে মনোনীতদের ভর্তি নিশ্চিত করার সময় ২৩ জুন পর্যন্ত থাকবে। পরবর্তীতে ৩য় পর্যায়ের আবেদনের জন্য ২৪ জুন রাখা হয়েছে এবং ৩য় তালিকায় মনোনীতদের তালিকা প্রকাশিত হবে ২৫ জুন। ২৬ জুন রাখা হয়েছে ভর্তি নিশ্চিত করার জন্য এবং ২৭ জুন থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত কলেজগুলো ভর্তি কার্যক্রম পরিচালনা করবে।