দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজ

১০৬ রানের হারে শুরু রুমানাদের

সুপ্রভাত ক্রীড়া ডেস্ক

১৪ মাস পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরাটা সুখকর হলো না বাংলাদেশের মেয়েদের। প্রস’তি ম্যাচে ব্যাটে-বলে দাপট দেখানো দলটিকে খুঁজেই পাওয়া যায়নি প্রথম ওয়ানডেতে। নিজেদের সবচেয়ে বড় হার দিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার মেয়েদের বিপক্ষে সিরিজ শুরু করেছে রুমানা আহমেদের দল। পচেফস্ট্রুমের সেনওয়েস পার্কে গত শুক্রবার ১০৬ রানে হেরেছে বাংলাদেশ। দক্ষিণ আফ্রিকার ৯ উইকেটে করা ২৭০ রানের জবাবে তিন বল বাকি থাকতে ১৬৪ রানে গুটিয়ে যায় অতিথিরা। খবর বিডিনিউজ’র।
ওয়ানডেতে রানের দিক থেকে বাংলাদেশের মেয়েদের আগের সবচেয়ে বড় হার ছিল দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষেই। ২০১৩ সালে জোহানেসবার্গে ৯৫ রানে।
টস জিতে ব্যাট করতে নেমে স্বাগতিকদের ভালো শুরু এনে দেন লিজেলি লি। ৬৪ বলে ৭ চার আর এক ছক্কায় ৫৪ রানের আক্রমণাত্মক ইনিংসে সুর বেঁধে দেন এই ওপেনার।
মিডল অর্ডারে অধিনায়ক ড্যান ফন নিকার্ক খেলেন ৫২ বলে ৪৪ রানের দায়িত্বশীল ইনিংস। শেষটায় ঝড় তুলে দলকে পৌনে তিনশ রানে নিয়ে যান ক্লোয়ি ট্রায়ন। রান আউট হওয়ার আগে ৪২ বলে তিন ছক্কা আর ৯ চারে তিনি করেন ৬৫ রান।
বাংলাদেশের নাহিদা আক্তার (২/২২), ফাহিমা খাতুন (২/৫৩) ও জাহানারা আলম (২/৬৩) নেন দুটি করে উইকেট। রান তাড়ায় কখনও জয়ের সম্ভাবনা জাগাতে পারেননি বাংলাদেশ। দ্বিতীয় ওভারে ভাঙে তাদের শুরুর জুটি। দ্বিতীয় উইকেটে ৬৩ রান যোগ করেন সানজিদা ইসলাম ও ফারজানা হক।
ওপেনার সানজিদাকে (৩৫) ফিরিয়ে বাংলাদেশের প্রতিরোধ ভাঙেন অলরাউন্ডার ফন নিকার্ক। তার লেগ স্পিনে বিভ্রান্ত হয়ে দ্রুত ফিরেন রুমানা ও নিগার সুলতানা। প্রস্তুতি ম্যাচে সেঞ্চুরি হাঁকানো অধিনায়ক রুমানা ৩ রান করে হন এলবিডব্লিউ।
মিডল অর্ডারে প্রতিরোধ গড়তে পারেননি বাংলাদেশের কেউ। ৪৪ রানে ৮ উইকেট হারিয়ে এক সময়ে তাদের স্কোর ছিল ১১২/৯। সেখান থেকে দশম উইকেটে পান্না ঘোষের সঙ্গে ৫২ রানের জুটিতে পরাজয়ের ব্যবধান কমান ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস খেলা ফারজানা। ক্যারিয়ার সেরা ২৩ রান করে ফিরেন পান্না। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে এ নিয়ে চতুর্থ ফিফটি পাওয়া ফারজানা অপরাজিত থাকেন ৬৯ রানে। তার ১৪৬ বলের ইনিংসে আছে ৫টি চার। লেগ স্পিনে ২৩ রানে ৩ উইকেট নেন ফন নিকার্ক। বাঁহাতি পেসে ১৪ রানে ২ উইকেট নেন ট্রায়ন।
আগামী রোববার পচেফস্ট্রুমেই হবে দ্বিতীয় ওয়ানডে।