সৌন্দর্যায়ন ও সবুজায়ন প্রকল্পের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মেয়র

২০১৮-তেই শহর সাজবে নতুন সাজে

নিজস্ব প্রতিবেদক

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, ২০১৮ সালের মধ্যেই চট্টগ্রাম শহর এবং এর প্রত্যেকটি ওয়ার্ড নতুন সাজে সেজে উঠবে। প্রাণের এ নগরী হয়ে উঠবে পরিবেশবান্ধব ও দৃষ্টিনন্দন। তবে এর জন্য নগরবাসীকে অবশ্যই সচেতন হতে হবে।
শনিবার সন্ধ্যা ৭টায় পাঁচতারকা হোটেল রেডিসন ব্লু বে ভিউ থেকে কাজীর দেউড়ির মোড় পর্যন্ত দশমিক তিন কিলোমিটার এলাকার সৌন্দর্যায়ন ও সবুজায়ন প্রকল্পের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র এসব কথা বলেন।
নববর্ষ উপলক্ষে এই বিশেষ সৌন্দর্যায়ন ও সবুজায়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করেন বেসরকারি প্রতিষ্ঠান এক্সটেনসিভ মিডিয়া। এই কার্যক্রমের মধ্যে রয়েছে হোটেল রেডিসন ব্লু থেকে কাজীর দেউড়ির মোড় পর্যন্ত মূল সড়কের মিড আইল্যান্ড সবুজ গাছ-গাছালি ও মৌসুমী ফুলের গাছ দিয়ে সাজানো। থাকবে বৈদ্যুতিক পোলে দৃষ্টিনন্দন আলোর ঝলকানি, সঙ্গে রয়েছে চট্টগ্রামের
ইতিহাস-ঐতিহ্য এবং বিখ্যাত ব্যক্তিদের ছবি সম্বলিত বিবরণী।
এই সৌন্দর্যায়ন ও সবুজায়ন প্রকল্পের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মেয়র আরও বলেন, ‘এই শহর আমাদের সকলের। শহর পরিষ্কার রাখার দায়িত্ব সবার। যেখানে-সেখানে ময়লা ফেলা মোটেও কাম্য নয়। বহির্বিশ্বের কোন শহরে যেখানে সেখানে ময়লা ফেলে না নগরবাসী।
নগরবাসীকে দায়িত্বশীল আচরণের তাগাদা দিয়ে সিটি মেয়র আরও বলেন, ‘কোন বিবেকবান মানুষ যেখানে সেখানে ময়লা-আবর্জনা ফেলেন না। যেখানে সেখানে গাড়ি থামিয়ে উঠানামা করান না। আমাদের আচরণের পরিবর্তন হলে এই শহর হয়ে উঠবে সুন্দর ও দৃষ্টিনন্দন ক্লিনসিটি।’
উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য দেন বাগমনিরাম ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোহাম্মদ গিয়াস উদ্দীন, এনায়েতবাজার ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. সলিম উল্লাহ বাচ্চু, প্রকল্পের পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠান কেএসআরএম গ্রুপের পরিচালক (বিক্রয় ও বিপণন) ও সাবেক ক্রিকেটার এনামুল হক এবং ব্রান্ড কো অর্ডিনেটর মো. মনিরুজ্জামান রিয়াদ।