মুরগির দাম বাড়তি মূল্যেই আছে

বাজারে বাড়ছে গরমের সবজি, দাম আকাশচুম্বী

নিজস্ব প্রতিবেদক

ঋতুর পালা বদলে শীতের পর প্রকৃতিতে এখন গরমের সূচনা পর্ব চলছে। সবজি বাজারেও ঘটেছে এই রূপান্তর। শীতের সবজি মুলা, বাঁধাকপি, ফুলকপি, শিম, বেগুনের স’ান এখন দখল করেছে ঝিঙা, চিচিঙ্গা, কাকরোল, তিতা করল্লা, বরবটি প্রভৃতি গরমের সবজি। বাজারে সবজির কোন ঘাটতি নেই, তবু দাম চড়া। গত সপ্তাহে হঠাৎ বেড়ে যাওয়া মুরগির দাম এ সপ্তাহেও বলবৎ রয়েছে। মাছের বাজারেও নেই তেমন একটা ভাল খবর।
গতকাল নগরীর একাধিক কাঁচা বাজার ঘুরে বিক্রেতাদের টুকরিতে গরমের সবজির ছড়াছড়ি দেখা গেছে। তবে কিছু কিছু শীতের সবজি এখনও বাজারে রয়েছে। শীতের সবজিগুলোর দাম অপেক্ষাকৃত কম থাকলেও নতুন আসা সবজিগুলোর দাম আকাশচুম্বী। বাজারে কেজিপ্রতি টমেটো ২০-২৫ টাকা, ফুলকপি ও কাঁচা পেঁপে ৩০ টাকা, মিষ্টিকুমড়া ৩০ টাকা, দেশি লাউ ৩০ টাকা, বাঁধাকপি ৩৫ টাকা, কচুর ছড়া ৩০ ও শসা ৩০ টাকা, ক্ষিরা ৩৫ টাকা, বেগুন ৩০-৩৫ টাকা, নতুন দেশি আলু ৪০ টাকা, শিম ৪৫ টাকা, কাঁচা মরিচ ৪০ টাকা, বরবটি ৬০ টাকা, চিচিঙ্গা ৭০ টাকা, কাকরোল ৬০ টাকা, তিতা করল্লা ৬০ টাকা এবং ঢেঁড়স কেজিতে ৫০ টাকায় বিক্রি করতে দেখা গেছে। শাকের মধ্যে মাঝারি সাইজের এক আঁটি মিষ্টিকুমড়া শাক ৩০ টাকা, পাট শাক ২৫ টাকা, লাল শাক ১৫ টাকা, মুলা শাক ১৫ টাকা, পুঁই শাক ২০ টাকা, পালং
শাক ১৫ টাকা এবং জোড়া আঁটি কলমী শাক ১৫-২০ টাকায় বিক্রি হয়েছে।
গতকাল বাজারে আকারভেদে রুই মাছ বিক্রি হয়েছে কেজিপ্রতি ২৩০ থেকে ২৫০ টাকা, কাতলা ২৫০ থেকে ৩০০ টাকা, চিংড়ি আকার ভেদে ৪৮০ থেকে ৬৫০ টাকা, তেলাপিয়া ১২০ থেকে ১৮০ টাকা, পাঙ্গাস ১৫০ থেকে ২০০ টাকা, মলা মাছ ১৭০ থেকে ২০০ টাকা, লইট্টা ১২০ থেকে ১৫০ টাকা, বাটা মাছ ৪০০ টাকা, কোরাল ৪৫০ টাকা, কই ৩০০ টাকা এবং কেঁচকি মাছ ২০০-২২০ টাকায় বিক্রি হয়েছে।
এছাড়া গতকাল বাজারে কেজিপ্রতি ব্রয়লার মুরগি বিক্রি হয়েছে ১৪৫ টাকা, পাকিস্তানি লাল মুরগি ২৫০ থেকে ২৬০ টাকা, দেশি মুরগি ৩৫০ থেকে ৩৬০ টাকা। ছাগলের মাংস ৬৮০ টাকা এবং গরুর মাংস কেজিতে ৫৭০-৬৫০ টাকায় বিক্রি করতে দেখা গেছে।