ডিজিটাল বাজার ব্যবস্থাপনা

বাড়ছে জনপ্রিয়তা শংকাও কম নয়

মোহাম্মদ আলী

ঘরেই বসেই চাহিদা বা মনের মতো পণ্য হাতে পেতে বর্তমানে ‘ডিজিটাল বাজার ব্যবস’া’ দিন দিন জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। কম্পিউটার, মোবাইল ফোন ও ইন্টারনেটের মাধ্যমে পণ্য ও সেবার লেনদেন করাকেই ডিজিটাল বাজার ব্যবস’া হিসেবে ধরা হয়। বিভিন্ন সার্চ ইঞ্জিন, সোশ্যাল মিডিয়া, ইমেইল ও ওয়েব সাইট ডিজিটাল বাজার ব্যবস’ার অন্যতম মাধ্যম।
এক গবেষণায় দেখানো হয়েছে, সময় বাঁচানো, মূল্যের নমনীয়তা, বিপুল পণ্য সম্ভার দেখার সুযোগ, সাধারণ বাজারে পাওয়া যায় না এমন পণ্য, তুলনামূলক ব্যয় নির্ধারণ ও তাৎক্ষণিক সুবিধা- এ ছয়টি কারণে ভোক্তারা ডিজিটাল বাজার ব্যবহার করে।
তবে ডিজিটাল বাজার ব্যবস’ারও অনেক প্রতিবন্ধকতা রয়েছে। বিশেষজ্ঞদের মতে, প্রতিশ্রুত পণ্য বা সেবা না দেওয়া ডিজিটাল বাজার ব্যবস’ার বড় সমস্যা। এছাড়া পেমেন্ট ঝুঁকি (ডাবল পেমেন্ট, ক্রেডিট কার্ডের তথ্য, লেনদেনের গোপনীয়তা), অশ্লীল তথ্য প্রচার, গোপনীয়তা প্রকাশ (বিশ্বের মাত্র ৫৭ টি দেশে ডাটা সংরক্ষণ ও গোপনীয়তা আইন আছে), অতিরিক্ত মূল্য দাবি, কল সেন্টার সঠিকভাবে সেবা প্রদান না করা, অতিরিক্ত ডেলিভারি চার্জ দাবি করা ইত্যাদি ডিজিটাল বাজার ব্যবস’ার জন্য বড় চ্যালেঞ্জ।
সিআইজিআই-ইপসস কর্তৃক ২৪টি দেশের ২৪ হাজার ২২৫ জন ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর উপর জরিপে অনলাইনে কেনাকাটা না করার কারণ হিসেবে আস’া না থাকাকে প্রধান কারণ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে।
জাতীয় ভোক্তার অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর চট্টগ্রামের সহকারি পরিচালক নাসরিন আক্তার উপস’াপিত ‘ডিজিটাল বাজার ব্যবস’ায় অধিকতর স্বচ্ছতা ও ন্যায্যতা নিশ্চিত করণ’ শীর্ষক প্রবন্ধে বলা হয়েছে, বিশ্বের
জনসংখ্যার অর্ধেকেরও বেশি মানুষ এখন অনলাইন সুবিধা ভোগ করে, যা ১৯৯৫ সালে ছিল ১ শতাংশেরও কম। ২০০৮ সালের পর বাংলাদেশে ডিজিটাল ব্যবস’া আরো বেগবান হয়েছে। বর্তমানে বাংলাদেশে ৮০ দশমিক ৮৩ মিলিয়ন বা আট কোটিরও বেশি লোক ইন্টারনেট ব্যবহার করে।
ডিজিটাল বাজার ব্যবস’ার চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় ভোক্তার দায়িত্ব হিসেবে এ প্রবন্ধে বলা হয়েছে, সাবধান হতে হবে যেন বিক্রেতা জালিয়াতির আশ্রয় নিয়ে প্রতারণা না করতে পারেন, সাশ্রয়ী মূল্যের, ভালো মানের ও মুক্ত ইন্টারনেট পরিসেবা গ্রহণ, বিজ্ঞাপন না বুঝে পণ্য ক্রয় থেকে বিরত থাকা, ক্রয় রশিদ বুঝে নিয়ে পণ্য ক্রয় করা, পণ্য ক্রয়ে প্রতারিত হলে যথাযথ কর্তৃপক্ষের নিকট অভিযোগ করা।
জানা যায়, ভোক্তার অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এর ৪৫ ধারায় বলা হয়েছে, প্রতিশ্রুত পণ্য বা সেবা যথাযথভাবে বিক্রয় বা সরবরাহ না করলে অনুর্ধ্ব ১ বছর কারাদণ্ড বা অনধিক ৫০ হাজার টাকা জরিমানা বা উভয় দণ্ড।
ডিজিটাল বাজার ব্যবস’া সম্পর্কে জানতে চাইলে জাতীয় ভোক্তার অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর চট্টগ্রামের সহকারী পরিচালক নাসরিন আক্তার বলেন, ‘বর্তমান প্রযুক্তি নির্ভর যুগে ডিজিটাল বাজার থেকে মুখ ফিরিয়ে নেওয়ার সুযোগ নেই। ডিজিটাল সমস্যাগুলো যেহেতু কম্পিউটার ও ইন্টারনেটের মাধ্যমে সৃষ্টি হয়, সেহেতু কম্পিউটার প্রযুক্তি ব্যবহার করেই এগুলোর সমাধান করতে হবে। সরকার, ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান ও ভোক্তা সাধারণ পারস্পরিক বিশ্বাস, সততা ও জবাবদিহিতার মাধ্যমে সমস্যাগুলো যথাযথভাবে চিহ্নিত করতে হবে এবং সমন্বিতভাবে সমাধানের পথ বের করতে হবে। তাহলেই অনলাইন লেনদেনে কার্যকারিতা বৃদ্ধি পাবে।