শিকলবাহায় ফাঁকা গুলিবর্ষণ

চাঁদা না পেয়ে চায়ের দোকান ভাংচুর, আহত ২

নিজস্ব প্রতিনিধি, পটিয়া

কর্ণফুলী উপজেলার শিকলবাহা ইউনিয়নের সিডিএ’র টেক এলাকায় ফাঁকা গুলি বর্ষণ করে একটি চায়ের দোকান ভাংচুর করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে আহত হয়েছেন দোকানদার মোহাম্মদ পলাশ (৪৫) ও দোকানঘরের মালিক মোহাম্মদ আলমগীর (২৭)। আহতদের মধ্যে আলমগীরকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বুধবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে এ ঘটনা। উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ার আশংকায় বর্তমানে ওই এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।
পুলিশ ও স’ানীয় সূত্রে জানা গেছে, ফেনী
জেলার মাইজদি গ্রামের সিরাজুল রহমানের পুত্র মোহাম্মদ পলাশের একটি চায়ের দোকান রয়েছে কর্ণফুলী উপজেলার শিকলবাহা ইউনিয়নের সিডিএ’র টেক এলাকায়। প্রায় সময় এলাকার কিছু বখাটে যুবক চায়ের দোকানদার পলাশকে চাঁদা দেওয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করে। বুধবার রাতে ৪-৫জন যুবক দোকানে ঢুকে চা খাওয়ার অজুহাতে দোকানের ভাড়াটিয়া পলাশের কাছ থেকে চাঁদা দাবি করে। চাঁদা দিতে অস্বীকৃতি জানালে তাকে বেদমভাবে প্রহার করে বখাটেরা। খবর পেয়ে দোকানের মালিক আলমগীর ছুটে গেলে ঘটনাস’লে আরো কিছু যুবক জড়ো হয়। মো. নওশাদের নেতৃত্বে কিছু যুবক ৪-৫ রাউন্ড ফাঁকা গুলি বর্ষণ করে চায়ের দোকান ভাংচুর করে এবং তাদের দুইজনকে মারধর করে। ওই সময় ফ্রিজ, টিভি ও শো-কেস ভাংচুর করা হয়। এতে লক্ষাধিক টাকার মালামাল ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানান
কর্ণফুলী থানার ওসি সৈয়দুল মোস্তফা জানিয়েছেন, দোকান ভাংচুরের খবর পাইনি। তবে স’ানীয় দুটি পক্ষ মুখোমুখি অবস’ান করেছিল। বড় ধরনের সংঘর্ষের আশংকায় রাতে ও গতকাল (বৃহস্পতিবার) দিনভর অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছিল। দোকান ভাংচুরের কোন সত্যতা পেলেই তা খতিয়ে দেখে আইনগত ব্যবস’া নেওয়া হবে।