৭ হারের পর ওয়ানডে জিতলো অস্ট্রেলিয়া

সুপ্রভাত ক্রীড়া ডেস্ক

টানা ৭ ওয়ানডেতে হার। ওয়ানডেতে টানা এতো বেশি ম্যাচ এর আগে কখনোই হারেনি অস্ট্রেলিয়া। হারতে হারতে ওয়ানযেতে জয়ের বিষয়টি যেন ভুলেই গিয়েছিল অস্ট্রেলিয়ানরা! অবশেষে ভুলে যাওয়া সেই জয়ের মুখ দেখল অস্ট্রেলিয়ানরা। আজ অ্যাডিলেডে ৩ ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকাকে ৭ রানে হারিয়েছে স্বাগতিকরা। অস্ট্রেলিয়ার করা ২৩১ রানের জবাবে সফরকারী দক্ষিণ আফ্রিকা ৯ উইকেট হারিয়ে করতে পেরেছে মাত্র ২২৪ রান!
স্কোরকার্ডই বলে দিচ্ছে দলকে ভুলে যাওয়া জয়ের স্বাদ দেওয়ার নায়ক অস্ট্রেলিয়ার বোলাররা। টস হেরে ব্যাটিংয়ে মেনে আরও একবার ব্যর্থতার পরিচয় দেন অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটসম্যানরা। কাগিসো রাবাদা, প্রিটোরিয়াস, ডেল স্টেইনদের তোপের মুখে মাত্র ২৩১ রানেই গুটিয়ে যায় অস্ট্রেলিয়ার ইনিংস। অস্ট্রেলিয়ার টানা অষ্টম পরাজয়কেই তখন মনে হচ্ছিল নিয়তি! কিন’ বল হাতে দৃশ্যমান সেই নিয়তি বদলে দিয়েছেন স্তোইনিস, মিশেল স্টার্ক, হ্যাজলউডরা। অগ্নি-ঝরা বোলিং করে তারা দলকে এনে দিয়েছেন মধুর এক জয়। অ্যাডিলেডের বাউন্সি উইকেটে পেসাররা আগুন ঝরাবেন, সেটা সকালে পিচ পরিদর্শনে গিয়েই বুঝতে পেরেছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক ফ্যাফ ডু প্লেসি। তিনি তাই টস জিতে প্রথমে বল তুলে দেন বোলারদের হাতে। রাবাদা, প্রিটোরিয়াস, ডেল স্টেইনরা অধিনায়কের প্রত্যাশা পূরণও করেন। অস্ট্রেলিয়ার কোনো ব্যাটসম্যানকেই তারা চোখ রাঙাতে দেননি। তিন তিনজন হাফসেঞ্চুরির পথে হাঁটলেও কাউকেই তা ছুঁতে দেননি। অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে তাই সর্বোচ্চ ৪৭ রান অ্যালেক্স ক্যারে।
এছাড়া ক্রিস লিন ৪৪, অ্যারন ফিঞ্চ ৪১ রান করেন। প্রোটিয়াদের মধ্যে বল হাতে সবচেয়ে সফল রাবাদা। তিনি নেন ৪ উইকেট। প্রিটোরিয়া নেন ৩টি, স্টেইন ২টি, এনগিগি ১টি। রাবাদা-প্রিটোরিয়া-স্টেইনরা যেখানে তাণ্ডব শেষ করেছিলেন, স্তোইনিস-স্টার্ক-হ্যাজলউডরা ঠিক সেখান থেকেই শুরু করেন পাল্টা তাণ্ডব। তারাও কোনো প্রোটিয়া ব্যাটসম্যানকে বিপদজনক হয়ে উঠতে দেননি। অধিনায়ক ডু প্লেসি ও ডেভিড মিলার যা একটু চোখ রাঙিয়েছেন। ডু প্লেসি করেছেন ৪৭ রান। মিলার ফিরেছেন ৫১ রান করে। এছাড়া আর কেউই ২০-এ কোটা পেরোতে পারেনি।
অস্ট্রেলিয়ার বোলারদের মধ্যে সবচেয়ে সফল স্তোইনিস। তিনি ৩৫ রানে নিয়েছেন ৩ উইকেট। স্টার্ক ও হ্যাজলউড নিয়েছেন ২টি করে, প্যাট কামিন্স নিয়েছেন ১টি। খবর পরিবর্তন’র।