৭ পাকিস্তানি সেনা হত্যার দাবি ভারতের

সুপ্রভাত বহির্বিশ্ব ডেস্ক

‘পারমাণবিক যুদ্ধ’ নিয়ে ভারতকে চ্যালেঞ্জ জানানোর পরদিনই বিরোধপূর্ণ কাশ্মির সীমান্তে সাত পাকিস্তানি সেনাকে হত্যার দাবি করেছে ভারতীয় সেনাবাহিনী। ভারতীয় বার্তা সংস্থা পিটিআই ভারতীয় সেনা সূত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে এই দাবি করেছে। তবে পাকিস্তানের আন্তঃবাহিনী গণসংযোগ অধিদপ্তর (আইএসপিআর) জানিয়েছে, তাদের ৪ সেনা ও ভারতের ৩ সেনা নিহত হয়েছে। খবর বাংলাট্রিবিউন। শুক্রবার ভারতের সশস্ত্রবাহিনী দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে ভারতীয় সেনাপ্রধান জেনারেল বিপিন রাওয়াত বলেন, পাকিস্তানের ‘পারমাণবিক ধাপ্পাবাজি’র জবাব দিতে প্রস্তুত রয়েছে তার বাহিনী। তিনি বলেন, ‘যদি সত্যিই পাকিস্তানের সঙ্গে আমাদের লড়াই করতে বলা হয় তাহলে আমরা তাদের পারমাণবিক অস্ত্রের ভয়ে বলবো না যে, আমরা সীমান্ত অতিক্রম করতে পারবো না। এটা একটা পারমাণবিক ধাপ্পাবাজি।’
এই খবর প্রকাশের পরই রোববার পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী খাজা মো. আসিফ টুইটারে কড়া প্রতিক্রিয়া জানিয়ে টুইটারে পাল্টা হুমকি দেন। তিনি লিখেছেন, যদি ভারত আমাদের সক্ষমতা দেখতে চায়, তাহলে পাকিস্তানে হামলা চালিয়ে দেখুক। ভারতীয় জেনারেলের সংশয় দূর হয়ে যাবে।
এই উত্তপ্ত বাক্যবিনিময়ের পর সোমবার কাশ্মির সীমান্তে উভয় দেশের বাহিনীর মধ্যে গোলাগুলির খবর এলো। ভারতীয় সেনাবহিনী পিটিআইকে জানায়, গত শনিবার রাজৌরি জেলায় পাকিস্তানি সেনাদের গুলিতে এক ভারতীয় সেনার মৃত্যুর প্রতিশোধ নিতে জম্মু-কাশ্মিরের নিয়ন্ত্রণ রেখায় পাল্টা হামলা চালালে সাত পাকিস্তানি সেনা নিহত হয়। পাকিস্তান সরকারের তরফ এক টুইট বার্তায়, চার সৈন্যের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করা হয়েছে। ভারতীয় সেনাবাহিনীর এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা পিটিআইকে বলেন, মেন্ধর সেক্টরের পুঞ্চে জেলার জাগলোত এলাকার নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর পাকিস্তানি সেনাদের লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে ভারতীয় সেনারা।
তবে পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম ডনের খবরে আইএসপিআর-এর সংবাদ বিজ্ঞপ্তির সূত্র ধরে জানানো হয়, চার পাকিস্তানি সেনাকে হত্যার পর পাল্টা হামলায় তিন ভারতীয় সেনাকে তারা হত্যা করেছে।
আইএসপিআর-এর সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, কাশ্মির সীমান্তে ভারতীয় বাহিনীর মর্টার গোলা নিক্ষেপে চার পাকিস্তানি সেনা নিহত হয়। ওই সময় পাকিস্তানের পক্ষ থেকে পাল্টা হামলা চালানো হলে তিন ভারতীয় সেনা সদস্য নিহত হয়।