৫০ হাজার টাকা জরিমানা

পাথর উত্তোলনের দায়ে ৭ শ্রমিক আটক থানচিতে

নিজস্ব প্রতিবেদক, বান্দরবান
Bandarban-Stone-PiC

বান্দরবানের থানচিতে ঝিরি-খাল থেকে অবৈধভাবে পাথর উত্তোলনের দায়ে ৭ শ্রমিককে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে থানচি উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান চ সা থোয়াই মারমা, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান উবা মং ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান খামলাই ম্রোর কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। গতকাল দুপুরে এ ঘটনা ঘটে।
প্রশাসন ও পুলিশ জানায়, জেলার থানচি উপজেলার বলিপাড়া পাইক্ষ্যং মৌজা এবং থানচি মৌজায় ঝিরি ও খাল থেকে অবৈধভাবে পাথর উত্তোলন বন্ধে থানচি উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) জাহাঙ্গীর আলমের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালায়। এসময় দুটি মৌজা থেকে পাথর উত্তোলনের দায়ে ৭ শ্রমিককে আটক এবং বিপুল পরিমাণে উত্তোলন করা পাথর জব্দ করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। আটকের পর ভ্রাম্যমাণ আদালত শ্রমিক নিয়োগ দেয়া ব্যক্তিদের কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করে মুচলেকা নিয়ে শ্রমিকদের ছেড়ে দেন। শ্রমিকদের কাছ থেকে পাওয়া তথ্যমতে, পাথর উত্তোলনে জড়িত আছেন
থানচি উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান চ সা থোয়াই মারমা, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান উবা মং এবং সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান খামলাই ম্রো। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে থানচি ইউএনও জাহাঙ্গীর আলম জানান, ঝিরি, ছড়া খাল থেকে অবৈধভাবে প্রাকৃতিক পাথর উত্তোলন বন্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালিয়ে ৭ শ্রমিককে আটক করেছে। আটকের পর জিজ্ঞাসাবাদে শ্রমিকরা থানচি উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান চ সা থোয়াই মারমা এবং সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান উবা ম-এর অধীনে কাজ করার বিষয়টা জানিয়েছে। এবং পাইক্ষ্যং মৌজায় পাথর উত্তোলনের স’ানের জায়গার মালিক সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান খামলাই ম্রো। জড়িত ব্যক্তিদের কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করে মুচলেকা নিয়ে আটক শ্রমিকদের ছেড়ে দেয়া হয়েছে।