ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স

৩ বছরে ৩০ হাজার ফ্লাইট পরিচালনা

নিজস্ব প্রতিবেদক
1779746_526428307465370_232830364_n

বেসরকারি উড়োজাহাজ সংস’া ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স তিন বছর অতিক্রম করেছে গত ১৭ জুলাই। ২০১৪ সালে যাত্রা শুরু করে এ সংস’া অর্জন করেছে সাফল্যের মাইলফলক। তিন বছর আগে ৭৬ আসনবিশিষ্ট দুটি ড্যাশ ৮-কিউ ৪০০ এয়ারক্রাফট দিয়ে ঢাকা-যশোর ফ্লাইট পরিচালনার মাধ্যমে যাত্রা শুরু করে ইউএস বাংলা। শুরুর এক বছরের মধ্যে অভ্যন্তরীণ আকাশপথের যোগাযোগ ব্যবস’াকে সদৃঢ় করেছে। বর্তমানে অভ্যন্তরীণ রুটে ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, সিলেট, যশোর, সৈয়দপুর, বরিশাল, রাজশাহী রুটে প্রতিদিন ফ্লাইট পরিচালনা করছে।
২০১৬ সালের ১৫ মে ঢাকা-কাঠমাণ্ডু রুটে ফ্লাইট পরিচালনার মধ্যেমে আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে যাত্রা শুরু করে। বর্তমানে কাঠমাণ্ডু ছাড়াও ঢাকা থেকে কলকাতা, মাস্কাট, কুয়ালালামপুর, সিঙ্গাপুর, ব্যাংকক রুটে নিয়মিত ফ্লাইট পরিচালনা করে আসছে। এছাড়া চট্টগ্রাম থেকে কলকাতা রুটে ফ্লাইট পরিচালনা করছে। আগামী ১ সেপ্টেম্বর ঢাকা ও চট্টগ্রাম থেকে দোহা রুটে ফ্লাইট পরিচালনা শুরু করতে যাচ্ছে। খুব শিগগির আবুধাবী, জেদ্দা, রিয়াদ, দাম্মাম, দুবাই, হংকং, গুয়াংজুহ, দিলী, চেন্নাই ও পারো রুটে ফ্লাইট পরিচালনা করতে যাচ্ছে ইউএস-বাাংলা এয়ারলাইন্স। গত রোববার সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষ।
বর্তমানে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের বিমান বহরে ছয়টি এয়ারক্রাফট রয়েছে। এসবের মধ্যে ১৬৪ আসনের তিনটি বোয়িং ৭৩৭-৮০০ এবং ৭৬ আসনের তিনটি ড্যাশ ৮-কিউ ৪০০ এয়ারক্রাফট রয়েছে। ইউএস-বাংলার রয়েছে নিজস্ব ইন-ফ্লাইট ম্যাগাজিন ‘বু স্কাই’। বর্তমানে সপ্তাহে অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক রুটে ৩০০টির অধিক ফ্লাইট পরিচালিত হয়। প্রতিষ্ঠার পর থেকে গত তিন বছরে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স প্রায় ত্রিশ হাজার ফ্লাইট পরিচালনা করে বাংলাদেশে উড়োজাহাজ পরিবহনে এক অনন্য নজির স’াপন করেছে।
ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সে বর্তমানে দেশে-বিদেশে ১২শ কর্মকর্তা-কর্মচারী রয়েছেন। টিকেট সংগ্রহ করার জন্য রয়েছে অন-লাইন বুকিং সুবিধা। রয়েছে হোম ডেলিভারি সুবিধাও। সারাদেশে নিজস্ব ৩০টি সেলস্অফিস রয়েছে। এছাড়া কাঠমাণ্ডু, কলকাতা, মাস্কাট, কুয়ালালামপুর, সিঙ্গাপুর, ব্যাংকক, দোহা, কানাডা, নিউইয়র্ক এ নিজস্ব সেলস্অফিস আছে। ফ্রিকোয়েন্ট ফ্লাইয়ারদের জন্য রয়েছে স্কাইস্টার প্যাকেজ। যার মাধ্যমে শুধু টিকেটেই সুবিধা পাবে না বরং যাত্রীরা বিভিন্ন ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানে বিভিন্ন ধরনের প্যাকেজ সুবিধাও পেয়ে থাকে।
বিভিন্ন অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক গন্তব্যে কার্গোও পরিবহন করে থাকে ইউএস বাংলা এয়ার। সাফল্যের সাথে তিন বছর অতিক্রম করায় ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের ব্যবস’াপনা পরিচালক মোহাম্মদ আবদুল্লাহ আল-মামুন বলেন, ‘প্রতিযোগিতামূলক বিশ্বে আমরা যেকোন ধরনের চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করতে প্রস’ত। আমাদের উড়োজাহাজ বহরে অধিক সংখ্যক আধুনিক উড়োজাহাজ যুক্ত করে চলেছি। বহরে অধিক সংখ্যক উড়োজাহাজ ও অধিক গন্তব্য সমপ্রসারণের লক্ষ্যে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স কাজ করে যাচ্ছে। দেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতির সাথে সম্পৃক্ত থাকতে পেরে ইউএস-বাংলা পরিবার অত্যন্ত আনন্দিত ও গর্বিত।’