পানছড়ির রাবার ড্যামে ছিদ্র

২৫ বছরের নিশ্চয়তা চারেই শেষ

নিজস্ব প্রতিবেদক, খাগড়াছড়ি

জেলার পানছড়ি শান্তিপুর এলাকায় চেঙ্গি নদীর ওপর নির্মিত রাবার ড্যামে ফুটো হয়ে বাঁধের সেচ কার্যকারিতা নষ্ট হয়ে গেছে। বিগত ২০১৩-১৪ সালে বাঁধটি নির্মাণকালে স্থায়িত্বকাল হিসেবে ২৫ বছরের নিশ্চয়তা দেয়া হয়েছিল। কর্তৃপক্ষের উদাসীনতা, রক্ষণাবেক্ষণে অবহেলার ফলে রাবার ফেটে যাওয়ায় চলতি বোরো এবং মৌসুমী সব্জি চাষের প্রয়োজনীয় সেচ সুবিধা নিয়ে কৃষকদের মাঝে দুশ্চিন্তা দেখা দিয়েছে। রাবার ড্যাম পরিচালনা কমিটির সভাপতি উপায়ন চাকমা জানায়, রাবারের জয়েন্ট ছুটে গেছে। তাই এবার পানি আটকানো যাচ্ছে না। এটা মেরামতের জন্য এক মাস আগে এলজিইডি অফিসে বলেছি তারা যোগাযোগ করে জানাবে বলেছে।তিনি জানান, বাঁধ দেয়ার ফলে চেঙ্গির দু’পাশের সাড়ে ছয়’শ হেক্টর জমিতে ধান চাষ হতো। কিন্তু এবার বাঁধে ছিদ্র হওয়ায় কৃষকরা আবাদ নিয়ে শংকিত।
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আলাউদ্দিন শেখ জানায়, বোরোর চাষ প্রায় শেষ হবার পথে। তবে সামনের সময়ে খরা দিলে প্রচুর পানির প্রয়োজন পড়বে। কারণ বোরো চাষ হয় সেচ দিয়েই। পরিমাণমত পানি না পেলে কৃষকেরা ভালো ফলন পাবে না।
উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা প্রিয় কান্তি চাকমা জানান, ড্যামে বাঁধ দেয়ার ফলে উপজেলায় মাছের উৎপাদন ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পেয়েছিল। কিন্তু এবার চেঙ্গিতে পানি নেই তাই নানা জাতের মাছের উৎপাদন অনেকাংশে কমে যাবে।
এ ব্যাপারে পানছড়ি উপজেলা প্রকৌশলী অরুণ কুমার দাস বলেন, রাবার ড্যাম সমবায় সমিতির মাধ্যমে সেচ কর আদায় করার কথা ছিল। সেচ করের টাকা দিয়েই ড্যামের মেরামত করার কথা। সেচ কর আদায় না করার ফলেই মেরামতে সময় লাগছে। এ ব্যাপারে উচ্চ পর্যায়ে যোগাযোগ করা হয়েছে। টেকনিক্যাল বিভাগের লোক এসেও সার্ভে করে গেছে। বর্তমানে বরাদ্দ নেই। বরাদ্দ এলেই তা মেরামত করা হবে।