১৬ কোটি মানুষকে বঞ্চিত করা হচ্ছে: ড. কামাল

সুপ্রভাত ডেস্ক গ্ধ

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়ক ও গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেন বলেছেন, ১৬ কোটি মানুষকে অধিকার থেকে বঞ্চিত করা হচ্ছে, সংবিধান লঙ্ঘন করা হচ্ছে। আমি বিশ্বাস করি ১৬ কোটি মানুষ এটা মেনে নেবে না। আমাদের যা করণীয় আছে আমরা অন্তত করবো। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় জাতীয় প্রেসক্লাবের এক শোকসভায় এসব কথা বলেন তিনি। হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দীর পুত্র প্রয়াত রাশেদ সোহরাওয়ার্দীর মৃত্যুতে এ শোকসভার আয়োজন করে
গণফোরাম। খবর বাংলানিউজ।
ড. কামাল হোসেন বলেন, আমরা গণতন্ত্রের জন্য লড়াই করছি। ৩০ তারিখ যা ঘটেছে, সবাই নাটক বলছে, ভাওতাবাজি বলছে। দুঃখজনক। এগুলো কেন করতে হলো, কেন করতে হচ্ছে? আমরা মনে করি ১৬ কোটি মানুষকে অপমান করা হচ্ছে।
জেএসডির সভাপতি আসম আবদুর রব বলেন, ৩০ তারিখ ভোট ডাকাতি হয়েছে। ভোটকেন্দ্রে আপনাকে ঢুকতে দিলো না। আপনারা কেন মাঠে নামলেন না, আন্দোলন করলেন না। এখন কেউ রাজনীতিতে ত্যাগস্বীকার করতে চায় না। সবাই আপস করতে চায়। এক লাখ নেতাকর্মী গ্রেফতার আছে। মুক্ত করতে আসুন ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন করি।
শোকসভায় ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন বলেন, রাজনীতি এখন ব্যবসা হয়ে গেছে। দেশের রাজনীতি শেষ হয়ে গেছে! এখন পুলিশও রাজনীতিতে জড়িত হয়েছে। তারা দেশের মানুষ পেটায়। আজকে তারা মনে করে তাদের ছাড়া ড. কামালরা কি দেশ চালাতে পারবে? এখন দেশে যা চলছে তা আমলাতান্ত্রিক। আমলারাই সবকিছু করছে।
জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়ক ও গণফোরামের সভাপতি ড. কামাল হোসেনের সভাপতিত্বে শোকসভায় আরো উপসি’ত ছিলেন, বিএনপির স’ায়ী কমিটির সদস্য ড. আব্দুল মঈন খান, গণফোরামের কার্যকরী সভাপতি সুব্রত চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক মোস্তফা মহসিন মন্টু, প্রেসিডিয়াম সদস্য মোকাব্বি খান, জগলুল হায়দার আফ্রিক প্রমুখ।