‘হালিশহরে যে কোন পরিস্থিতি মোকাবেলায় প্রস্তুত চসিক ’

সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন তার বক্তব্যে বলেন, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে হালিশহর এলাকায় জন্ডিসের প্রাদুর্ভাব দেখা দেয়ার পর থেকে ওই এলাকায় জনসাধারণকে সচেতন করতে ব্যাপকভাবে মাইকিং ও লিফলেট বিতরণ করা হয়। এছাড়াও হালিশহর এলাকায় সিটি করপোরেশন পরিচালিত যে সকল নগর স্বাস’্য সেবাকেন্দ্র রয়েছে সেগুলোকে চিকিৎসাসেবা প্রদানসহ যে কোন ধরনের পরিসি’তি মোকাবেলায় সার্বক্ষণিকভাবে প্রস’ত রাখা হয়েছে। গতকাল রোববার বিকালে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন এর কনফারেন্স রুমে নগরীর হালিশহরে জন্ডিসের প্রাদুর্ভাব নিয়ে আয়োজিত পর্যালোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। সভায় রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর) ও ন্যাশনাল ইনফ্লুয়েঞ্জা সেন্টার (এনআইসি) বাংলাদেশ এর কর্মকর্তা ও বিজ্ঞানীরা হালিশহর ও আশপাশের এলাকায় সার্ভে করে গত কয়েকমাসে জন্ডিসের প্রাদুর্ভাবে যে সকল কারণ ও সমস্যা চিহ্নিত করা হয়েছে তা সিটি মেয়রের নিকট তুলে ধরেন।
সভায় চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের প্রধান স্বাস’্য কর্মকর্তা ডা. সেলিম আকতার চৌধুরী, চট্টগ্রামের অতিরিক্ত সিভিল সার্জন ডা. শফিকুল ইসলাম, আইসিডিডিবির রেবেকা সুলতানা, খালেদ সাইফুল্লাহ, আইইডিসিআর এর ডা. পারভেজ আহমেদ, ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গানাইজেশনের কর্মকর্তা আলাউদ্দিন আহমেদ, চট্টগ্রাম ওয়াসার তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মাকসুদুল আলম, কনসালটেন্ট মিলন চক্রবর্তী প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
মেয়র আইইডিসিআর ও এনআইসির কর্মকর্তাদের জনস্বার্থে এ ধরনের সার্ভে পরিচালনার মাধ্যমে মূল্যবান পরামর্শ দেয়ায় আন্তরিক ধন্যবাদ জানান। মেয়র তাদের অভিজ্ঞতা ও পরামর্শগুলো বিবেচনায় রেখে করপোরেশন কাজ করবে বলে আশ্বস্ত করেন। তিনি এ ব্যাপারে জনগণকে সচেতন করতে ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়াকে ইতিবাচক ভূমিকা রাখার আহ্বান জানান। বিজ্ঞপ্তি