আদালতে মোকতারের জবানবন্দি

হত্যায় জড়িত ১৪ জনের নাম প্রকাশ

নিজস্ব প্রতিবেদক

ছাত্রলীগ নেতা সুদীপ্ত বিশ্বাস খুনের দায় স্বীকার করে গতকাল বুধবার আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন যুবলীগ কর্মী মোকতার হোসেন। সুদীপ্ত হত্যাকাণ্ডে জড়িত ১৪ জনের নামও প্রকাশ করেছেন মোকতার।
এর আগে আদালতের নির্দেশে ১৩ থেকে ১৭ সেপ্টেম্বর মোকতারকে পুলিশ হেফাজতে রাখা হয়। গতকাল রাতে জানতে চাইলে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সদরঘাট থানার ওসি (তদন্ত) রুহুল আমীন বলেন, ‘সুদীপ্ত হত্যার দায় স্বীকার করে মোকতার হোসেন আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে। হত্যাকাণ্ডে আরও কয়েকজন জড়িত থাকার ঁ
তথ্য দিয়েছে সে। তবে কার নির্দেশে এ খুন তা বলেনি মোকতার।’
১৬৪ ধারার জবানবন্দিতে সুদীপ্ত হত্যাকাণ্ডে যে ১৪ জনের নাম মোকতার প্রকাশ করেছেন তারা হলেন-আইনুল কাদের, জাহেদুর রহমান জাহিদ, মোরশেদ আলম নিপু, হানিফ, মুরাদ, চশমা রুবেল, জিহাদ, রুবেল, ফয়সাল, মো. রুবেল বাপ্পী, শামীম, বাবু, সুমন ও খায়ের। এর মধ্যে বাবু ও খায়েরকে গত মঙ্গলবার গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
এদিকে সিএমপির দায়িত্বশীল এক কর্মকর্তার দাবি, রিমান্ডে থাকা অবস’ায় সুদীপ্ত খুনের ‘নির্দেশদাতা’ হিসেবে লালখানবাজার এলাকার এক ‘গডফাদার’ এর নাম বলেছে মোকতার। কিন’ পুলিশ ‘রহস্যজনক’ কারণে তা চেপে যাচ্ছে। সরকারি দলের একটি বিশেষ মহলের চাপে ওই গডফাদারকে রক্ষার চেষ্টা করছে পুলিশ। তবে এ অভিযোগ নাকচ করে দিয়েছেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা রুহুল আমীন।
জানা গেছে, সুদীপ্ত খুনের ঘটনায় গতকাল বুধবার মহানগর হাকিম আবু ছালেম মো. নোমানের আদালতে দুই ঘণ্টা ধরে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেন মোকতার হোসেন। চারদিন পুলিশ হেফাজতে রেখে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে গতকাল বুধবার মোকতারকে আদালতে হাজির করা হয়।
৬ অক্টোবর নগরের দক্ষিণ নালাপাড়ায় নগর ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক সুদীপ্ত বিশ্বাসকে বাসা থেকে ডেকে নিয়ে পিটিয়ে খুন করে দুর্বৃত্তরা। ৮দিন পর গত ১৩ অক্টোবর রাতে মোকতারকে নগরের বড়পোল এলাকা থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ।