স্মরণ সভায় বক্তারা অধিকার প্রতিষ্ঠায় বিনোদ বিহারীর অবদান অনস্বীকার্য

বিজ্ঞপ্তি

স্বাধীনতা অর্জনে ও মেহনতী মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠায় বিপ্লবী বিনোদ বিহারী চৌধুরী সব সময় নেতৃত্বে দিয়ে গেছেন। শুধু ব্রিটিশের বিরুদ্ধে নয়, পাকিস্তানি স্বৈরশাসকদের বিরুদ্ধেও তিনি লড়াই করেছেন। জেল খেটেছেন, আবার সশস্ত্র লড়াইয়েও তিনি অংশগ্রহণ করেছেন। ন্যায় ও সত্য প্রতিষ্ঠায় তিনি ছিলেন আপসহীন। সব সময় তিনি একটি সুশিক্ষিত জাতি গঠনে অবদান রেখে গেছেন। অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে তিনি সম্পৃক্ত থেকে শিক্ষা বিস্তারে আমৃত্যু কাজ করে গেছেন। ব্রিটিশবিরোধী আন্দোলন ও আমাদের স্বাধীনতা সংগ্রামে তাঁর অবদান জাতি চিরদিন স্মরণে রাখবে। ১০ জানুয়ারি বিকালে নগরীর জেএমসন হলে কাউন্সিল অব ভোক্তা অধিকার বাংলাদেশ (সিআরবি)’র উদ্যোগে বিপ্লবী বিনোদ বিহারী চৌধুরীর ১০৮তম জন্মবার্ষিকীর স্মরণে সিআরবির মহাসচিব নক্শাবিদ কেজিএম সবুজের সভাপতিত্বে আয়োজিত সভায় উপরের বক্তব্য রাখেন আলোচকবৃন্দ।
সংগঠক নোমান উল্লাহ বাহারের সঞ্চালনায় অনর্ুষ্ঠিত সভায় অতিথি আলোচক ছিলেন ইউএসটিসি’র উপাচার্য অধ্যাপক ডা. প্রভাত চন্দ্র বড়-য়া, শহীদজায়া মুশতারী শফি, কবি ও সাংবাদিক অরুণ দাশগুপ্ত, প্রকৌশলী পরিমল কান্তি চৌধুরী, আবৃত্তিকার রণজিৎ রক্ষিত, লায়ন তাপস হোড়, হাজী মো. আবু নাছের, শাহাদাত হোসেন স্বপন, আব্দুস সামাদ রুবেল, শফিউল, মো. আলীসহ অন্য নেতৃবৃন্দ।