স্মরণসভায় মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়লেন লেখিকা জেসমিন খান

নিজস্ব প্রতিবেদক

শনিবার সন্ধ্যা ছয়টা। চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের ইঞ্জিনিয়ার আবদুল খালেক মিলনায়তনে চলছিল বিশিষ্ট রম্য সাহিত্যিক ফাহমিদা আমিন স্মরণে আলোচনা সভা। বক্তব্য রাখেন লেখিকা জেসমিন খান (৫৯)। বক্তব্য দিয়ে মঞ্চ থেকে নেমে দর্শক সারিতে বসেই খারাপ লাগছে বলে হেলে পড়েন তিনি। এসময় পাশে বসা অন্যরা বাতাস করতে লাগলেন। সভার সভাপতি ডাক্তার মঈনুল ইসলাম অবস’া খারাপ পরীক্ষা দেখে দ্রুত চেরাগী মোড়ের সেন্টার পয়েন্ট হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে অবস’ার আরো অবনতি হলে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে তিনি মৃত্যুবরণ করেন। হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তার মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।
সভায় উপসি’ত শাহ আলম নিপু জানান, ‘ফাহমিদা আমিন সম্পর্কে বক্তব্য দিয়ে মঞ্চ থেকে নেমে চেয়ার বসে অসুস’ বোধ করেন তিনি। এসময় তিনি খারাপ লাগছে বললে ডা. মঈনুল দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যেতে বলেন। পরে মেডিক্যাল নেয়ার পথে তিনি মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন।’
জেসমিন খান ভ্রমণ কাহিনীসহ বিভিন্ন বিষয়ে লেখালেখি করতেন। তার তিনটি বই রয়েছে। চট্টগ্রামের বিভিন্ন দৈনিকে তিনি নিয়মিত লেখালেখি করতেন। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি এক ছেলে এক মেয়ের জননী। তার স্বামী প্রগতি ইন্ডাস্ট্রিজ এবং ইস্টার্ণ ক্যাবল লি. এর সাবেক জেনারেল ম্যানেজার মোসলেম খান । নগরীর মোমিন রোডের জে এম প্যারাডাইজে পরিবার নিয়ে বসবাস করতেন তিনি।
ইঞ্জিনিয়ার আবদুল খালেক-প্রফেসর মোহাম্মদ খালেদ ফাউন্ডেশন রম্য সাহিত্যিক, রত্নগর্ভা ফাহমিদা আমিনের স্মরণে এ আলোচনা সভার আয়োজন করে। সভায় সভাপতিত্ব করেন ফাউন্ডেশনের সভাপতি ডা. মঈনুল ইসলাম মাহমুদ। এসময় ফাউন্ডেশনের সাধারণ সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন মজনুসহ চট্টগ্রামের কবি, সাহিত্যিক, সমাজকর্মী ও নারী নেত্রীরা উপসি’ত ছিলেন।
তার মৃত্যুতে চট্টগ্রাম কলেজ প্রাক্তন ছাত্র ছাত্রী পরিষদসহ বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও সাহিত্য সংগঠন শোক প্রকাশ করে।

আপনার মন্তব্য লিখুন