স্বপ্নগুলো ধরতে যদি পারি

আবুল কালাম বেলাল

বালিশটাতে মাথা গুঁজে দুচোখ বুঁজে
রাত করেছি আয়েশে পার স্বপ্ন খুঁজে।
স্বপ্নগুলো কোথায় থাকে? কোন্ সে বাঁকে?
কোন্ পটুয়ার রঙ-তুলিতে ছবি আঁকে?

কে তুমি ভাই বললে আমায় কানে কানে
স্বপ্ন থাকে খোলা চোখে ঘুমের ভানে।
মুক্ত হাওয়ার দোলায় নাচা শস্য মাঠে
শানবাঁধানো পুকুরঘাটে শাপলা পাঠে।
ঝর্না সুরে পাহাড় ভাঁজে সবুজ সাজে
চুমকি মাখা রোদের নীরব সুরের মাঝে
জোছ্না ধোয়া তারা রোয়া নীল আসমানে
ঝিলমিল নূর মায়াবী সুর রাতের গানে।

স্বপ্ন নাচে গন্ধ ভরা ফুলের গাছে
সাগর-নদীর ঘুঙুর পরা জলের নাচে
নতুন কিছু সৃষ্টি করায় কাব্য ছড়ায়
পাখির ডানায়, জুঁই-জোনাকি ফড়িং ধরায়।
বাবা মায়ের আদর মাখা মিষ্টি মুখে
এমন কি ঐ বুবুর বুকে দারুণ সুখে।

স্বপ্ন থাকে ঘুড়ি ওড়ায় লাটিম ঘোরায়
ময়ূর পেখম রঙিন তোড়ায় টাট্টু ঘোড়ায়
মাঠে সোনা ধানের শিষে, এমনকি সে-
থাকে মিশে পাখির সুরে মিষ্টি শিসে।

আর আছে সে রঙিন বইয়ে শব্দজুড়ে
স্নিগ্ধ মাটির অন্তঃপুরে গোপন সুরে।
কথায় কাজে প্রাণ মাতানো হাসি মুখে
স্বপ্ন নাচে, মন্দতে নয়, শুভর বুকে।

স্বপ্নগুলো মুঠোয় যদি ধরতে পারি
এই পৃথিবী সহজে জয় করতে পারি।