সভায় চবি উপাচার্য

স্বচ্ছতার মাধ্যমে ভর্তি কার্যক্রম সম্পন্ন হবে

বিজ্ঞপ্তি

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ২০১৮-২০১৯ শিক্ষাবর্ষে ১ম বর্ষ (সম্মান) কোর্সে ভর্তি কমিটির এক সভা বেলা ১১ টায় চবি উপাচার্য দপ্তরের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় সভাপতিত্ব করেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী। সভায় চবি উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. শিরীণ আখতার, অনুষদসমূহের ডিন, রেজিস্ট্রার, হলসমূহের প্রভোস্ট, বিভাগীয় সভাপতি, ইনস্টিটিউট ও গবেষণা কেন্দ্রের পরিচালক, প্রক্টর ও সহকারী প্রক্টর, অটোমেশন সেলের সদস্য এবং অফিস প্রধানবৃন্দসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাবৃন্দ উপসি’ত ছিলেন।

সভা পরিচালনা করেন ডেপুটি রেজিস্ট্রার (একাডেমিক) ও কমিটির সচিব এস এম আকবর হোসাইন।
উপাচার্য তাঁর ভাষণে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিগত ৩ বছরের একাডেমিক-প্রশাসনিক উন্নয়ন কার্যক্রম, সংস্কার এবং অর্জনসমূহ তুলে ধরে বলেন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় এখন দেশের শীর্ষ বিশ্ববিদ্যালয় (১ নম্বর) এবং বিশ্ব র্যাঙ্কিং এ ৩০৫০। এ অর্জনকে বিশ্ব সভায় অধিকতর মর্যাদাসীন করতে বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সকলকে স্ব স্ব দায়িত্ব পালনে অধিক যত্নবান হতে হবে।

এ বিষয়টিকে ধারণ করে ইতোমধ্যে ২০১৮-২০১৯ শিক্ষাবর্ষের ১ম বর্ষ অনার্স কোর্সের ভর্তি কার্যক্রম শুরু হয়েছে। শিক্ষার্থী এবং অভিভাবকদের অবর্ণনীয় কষ্ট লাঘবের বিষয়টি বিবেচনায় রেখে গত বছরের ন্যায় এ বছরও ৪টি ইউনিটে ভর্তি কার্যক্রম সম্পন্ন হবে। এ ছাড়া এ বছর চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় নিজস্ব অটোমেশনের মাধ্যমে ভর্তি কার্যক্রম পরিচালনা করা হবে।

ভর্তি সংক্রান্ত সার্বিক তথ্যাবলী পত্র-পত্রিকায় এবং বিশ্ববিদ্যালয় ওয়েবসাইট-এ প্রকাশ করা হবে। এ ভর্তি কার্যক্রম শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য একটি বিশাল কর্মযজ্ঞ। এ কর্মযজ্ঞ সুসম্পন্ন করতে বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের প্রত্যেককেই স্ব স্ব অবস’ান থেকে দায়িত্বশীল ভূমিকা পালন করতে হবে। উপাচার্য আসন্ন ভর্তি কার্যক্রম সর্বোচ্চ সততা, স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা ও আন্তরিকতার মাধ্যমে শুরু ও সুসম্পন্ন করার নিমিত্তে বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সকলের আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করেন। তিনি বলেন, এ ভর্তি কার্যক্রম নিয়ে কোনো গাফিলতি ও শৈথিল্য বরদাশত করা হবে না।

সভায় উপসি’ত বক্তারা আসন্ন ভর্তি কার্যক্রম সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে শুরু ও সম্পন্ন করার ব্যাপারে তাঁদের সর্বোচ্চ আন্তরিক সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে বলে প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।