সৌদিতে সামরিক মহড়া দেখলেন প্রধানমন্ত্রী

সুপ্রভাত ডেস্ক

সৌদি আরব নেতৃত্বাধীন মুসলিম দেশগুলোর জোটের যৌথ সামরিক মহড়া ‘গাল্ফ শিল্ড-১’ এর কুচকাওয়াজ ও সমাপনী অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সৌদি আরবের বাদশা সালমান বিন আবদুল আজিজ আল সৌদের আমন্ত্রণে প্রধানমন্ত্রী ওই অনুষ্ঠানে যোগ দেন। খবর বিডিনিউজের। গতকাল অনুষ্ঠানস’লে পৌঁছলে বাংলাদেশের সরকার প্রধানকে স্বাগত জানান বাদশা সালমান। দেশটির আল-জুবাঈর প্রদেশে ওই মহড়ায় বাংলাদেশসহ ২৪টি দেশ অংশ নিয়েছে।
অংশগ্রহণকারী দেশের সংখ্যা এবং ব্যবহৃত সমরাস্ত্রের বিবেচনায় এ মহড়াকে উপসাগরীয় অঞ্চলে হওয়া অন্যতম বৃহৎ সামরিক মহড়া হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে।
বাংলাদেশ এর আগে সৌদি আরব নেতৃত্বাধীন সামরিক জোটে অংশ নিয়ে এবার সামরিক মহড়ায় যোগ দিয়েছে। উপসাগরীয় অঞ্চলের নিরাপত্তা ও শান্তি প্রতিষ্ঠায় এবং প্রতিবেশী দেশগুলোর মধ্যে সামরিক সহযোগিতাপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রাখতে সৌদি আরব মাসব্যাপী এই মহড়ার আয়োজন করে।মহড়ায় অংশগ্রহণকারী দেশগুলো হলো- যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, সৌদি আরব, বাংলাদেশ, বাহরাইন, কাতার, কুয়েত, মিশর, জর্ডান, সুদান, মৌরিতানিয়া, মালয়েশিয়া, পাকিস্তান, শাদ, জিবুতি, নাইজার, কমোরোস, আফগানিস্তান, ওমান, গায়ানা, তুরস্ক, ও বুরকিনা ফাসো।
গত ১৮ মার্চ শুরু হওয়া এই মহড়ায় বাংলাদেশের ১৮ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল অংশ নেয়।
মহড়ার মুখপাত্র ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আবদুল্লাহ আল-সুবাইন বলেন, সৌদি প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে ২৪টি দেশের পদাতিক, বিমান ও নৌবাহিনী এই মহড়ায় অংশ নিয়েছে।আবদুল্লাহ বলেন, মহড়ায় দুই ধরনের সামরিক চর্চা করা হয়েছে। একটি হল শত্রুর বিরুদ্ধে প্রথাগত সামরিক অভিযান; অন্যটি অপ্রথাগত। গাল্ফ শিল্ড-ওয়ানের সমাপনী অনুষ্ঠানে যোগদান শেষে কমনওয়েলথ সরকার প্রধানদের বৈঠকে (সিএইচওজিএম) যোগ দিতে গতকাল বিকালেই দাম্মাম থেকে লন্ডনের পথে রওনা হন শেখ হাসিনা।
ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী টেরিজা মে’র আমন্ত্রণে ১৭ থেকে ২১ এপ্রিল ২৫তম কমনওয়েলথ শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দিচ্ছেন তিনি।
পররাষ্ট্রমন্ত্রী, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী, মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব, এসডিজি বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক এবং প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ও পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এই সফরে তার সঙ্গে থাকছেন। আট দিনের এই সফর শেষে আগামী ২৩ এপ্রিল শেখ হাসিনার দেশে ফেরার কথা রয়েছে।