সেরা স্টল স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা বিভাগ শেষ হলো উন্নয়ন মেলা

নিজস্ব প্রতিবেদক

সারা দেশের মতো নগরীতে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের আয়োজনে উন্নয়ন মেলায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা বিভাগ সেরা স্টল নির্বাচিত হয়েছে। অংশগ্রহণকারী ১২০টি স্টলের মধ্যে আগত দর্শনার্থী ও তাদের সেবা প্রদান এবং সাজসজ্জার ভিত্তিতে তিনটি স্টলকে সেরা নির্বাচিত করা হয়। নির্বাচিত সেরা তিনটি স্টলের মধ্যে প্রথম স’ান অধিকার করে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগ, দ্বিতীয় স’ান অধিকার করে প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয় এবং তৃতীয় স’ান অধিকার করে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর।
বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা বিনির্মাণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক গৃহীত সরকারের উন্নয়ন কার্যক্রম ও ভবিষ্যৎ কর্মপরিকল্পনা জনগণের সামনে তুলে ধরা, এমডিজি অর্জনে সাফল্য প্রচার এবং এসডিজি
কার্যক্রমে জনগণকে উদ্বুদ্ধ করার লক্ষ্যে সারাদেশের মতো চট্টগ্রামেও এমএ আজিজ স্টেডিয়াম সংলগ্ন জিমনেসিয়াম মাঠে গত বৃহস্পতিবার থেকে তিন দিনব্যাপী এ মেলা শুরু হয়েছিল। ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করা এবং ২০৪১ সালের মধ্যে ‘সমৃদ্ধ ও উন্নত বাংলাদেশ’ এ রূপান্তরের অগ্রযাত্রাকে বেগবান করার দৃঢ় প্রত্যয়ের মধ্যদিয়ে গতকাল শনিবার সমাপ্তি টানা হলো তিন দিনব্যাপী উন্নয়ন মেলা ২০১৮।
মেলার পুরস্কার বিতরণী ও সমাপনী অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক মো. জিল্লুর রহমান চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) শংকর রঞ্জন সাহা। বিশেষ অতিথি ছিলেন পুলিশ সুপার নুরে আলম মিনা, সিভিল সার্জন ডা. আজিজুর রহমান সিদ্দিকী, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোহাম্মদ মাসুকুর রহমান সিকদার, স’ানীয় সরকারের উপ-পরিচালক নায়েব আলী, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মো. হাবিবুর রহমান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মো. দেলোয়ার হোসেন প্রমুখ।
এবারের উন্নয়ন মেলায় সামরিক বাহিনীসহ ১২০ স্টলে মোট ১২৪টি সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান, ব্যাংক, বীমা, আর্থিক প্রতিষ্ঠান স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করে। গত তিন দিন জুড়ে স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীসহ মেলায় প্রচুর দর্শনার্থীদের সমাগম ছিলো। এবারের মেলার স্লোগান ছিল ‘উন্নয়নের রোল মডেল, শেখ হাসিনার বাংলাদেশ।’
মেলায় আগত দর্শনার্থীদের সামনে স্ব স্ব প্রতিষ্ঠান ও সংস’ার উন্নয়ন কার্যক্রম তুলে ধরে এবং সরকারি বিভিন্ন সেবা মেলার স্টল থেকেই প্রদান করা হয়। মেলায় প্রতিদিনই দেশবরেণ্য ও স’ানীয় শিল্পী-কলাকুশলীদের পরিবেশনায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের পরিবেশনা ছিল। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ, আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের নানা তথ্যচিত্র তুলে ধরা হয় এতে। এছাড়া ‘ব্লু, বিজনেস ও বিউটি’ এ তিনটি থিমকে ধারণ করে চট্টগ্রাম জেলার ব্র্যান্ডিং কার্যক্রম নিয়ে জেলা প্রশাসন কর্তৃক প্রণীত কর্মপরিকল্পনা, ভিডিওচিত্র, ব্যানার, লিফলেট ও ফেস্টুনের বিশেষ প্রদর্শনী ছিল এ মেলায়।