সুন্দর স্বদেশ নির্মাণে শিল্পমনস্ক তরুণদের অংশগ্রহণ প্রয়োজন

নিজস্ব প্রতিবেদক

‘সুুন্দর স্বদেশ নির্মাণের প্রত্যয়ে আমরা স্বপ্ন দেখি, স্বপ্ন দেখাই’- এই সেস্নাগানকে ধারণ করে তারম্নণ্যের ‘স্বপ্নযাত্রী’ সাহিত্য-সংস্কৃতি-সামাজিক-মানবিক নানা কাজের বর্ণাঢ্য দশটি বছর বছর পার করেছে।

সংগঠনের এক দশককে স্মরণীয় করে রাখতে জেলা শিল্পকলা একাডেমির গ্যালারি হলে পালিত হলো  প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। আলী প্রয়াসের সভাপতিত্বে উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন সমাজবিজ্ঞানী, প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. অনুপম সেন।

তিনি বলেন, সুন্দর স্বদেশ নির্মাণের জন্য শিল্পমনস্ক তরম্নণদের অংশগ্রহণ খুব বেশি প্রয়োজন। শুভবোধ জাগ্রত করতে যত বেশি শিল্প ও নন্দনকলার চর্চা হবে তত বেশি জাতির মননের জায়গা সমৃদ্ধ হবে। স্বপ্নযাত্রী  সুসংস্কৃতি চর্চার মাধ্যমে সুনাগরিক তৈরির পাশাপাশি মানবিক পৃথিবী গড়ে তোলার জাতীয় দায়িত্বই পালন করে যাচ্ছে। সমাজ প্রগতিকে এগিয়ে নিতে এ সংগঠনের ধারাবাহিক ভূমিকা অনন্য। আমরাও স্বপ্নযাত্রীর স্বপ্নসারথি হতে চাই। অনুষ্ঠানের শুরম্নতেই প্রধান অতিথি অনুষ্ঠান স্মারকের মোড়ক উন্মোচন, কেক কাটা ও প্রদীপ জ্বালিয়ে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন। ফরিদ উদ্দিন মোহাম্মদের স্বাগত কথনে কথামালা পর্ব শুরম্ন হয়। এতে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কথাসাহিত্যিক অধ্যাপক ড. মোহীত উল আলম, অধ্যাপক ড. ওবায়দুল করিম দুলাল, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিড়্গক ও নৃবিজ্ঞানী অধ্যাপক ড. রাহমান নাসির উদ্দিন, জেলা শিল্পকলা একাডেমির কার্যনির্বাহী পরিষদের সাধারণ সম্পাদক, নাট্যজন সাইফুল আলম বাবু।  বিশেষ অতিথির বক্তব্যে অধ্যাপক মোহীত উল আলম বলেন, স্বপ্নের শেষ নেই। এটি পরম্পরাগত বিষয়। স্বপ্নযাত্রী সুন্দর সমাজ নির্মাণের যে সংগ্রাম করছে, শুভবোধের যে অনুশীলন করছে তা প্রবহমান থাকবে প্রজন্ম থেকে প্রজন্মানত্মরে।

প্রফেসর ওবায়দুল করিম বলেন, সাংগঠনিক আবৃত্তি চর্চায় স্বপ্নযাত্রী এ শহরের একটি পরিচিত নাম। বাচিক উৎকর্ষতার পাশাপাশি সংগঠনটি সামাজিক-মানবিক দায়বদ্ধতার কাজও করে যাচ্ছে; এটি আমাদের আশান্বিত করে। শিল্পবান্ধব সুন্দর পরিবেশ গঠনে স্বপ্নযাত্রী একদিন মহীরম্নহ হয়ে ওঠবে, চলতে চলতে একদিন তার কাঙিড়্গত স্বপ্নের সন্ধান পেয়ে যাবে।

অধ্যাপক ড. রাহমান নাসির উদ্দিন বলেন, স্বপ্নযাত্রী সংগঠন একটি সুন্দর অভিযাত্রা অব্যাহত রেখেছে সমাজবদলের স্বপ্ন নিয়ে। অনুষ্ঠানে সংগঠনের সদস্যরা বৃন্দ প্রযোজনা, একক ও দ্বৈত আবৃত্তি পরিবেশন করেন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন উমেসিং মারমা ঊর্মি। বিজ্ঞপ্তি