সাতকানিয়া ট্র্যাজেডি তদনত্ম টিমের ঘটনাস’ল পরিদর্শন ‘এক সপ্তাহের মধ্যে রিপোর্ট’

নিজস্ব প্রতিনিধি, সাতকানিয়া

সাতকানিয়ার নলুয়া এলাকায় ইফতারসামগ্রী বিতরণকালে পদদলিত হয়ে ১০ মহিলার মৃত্যুর ঘটনায় গঠিত তদনত্ম টিম তদনত্মকাজ শুরম্ন করেছে। গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১২টায় সাতকানিয়া উপজেলার নলুয়া ইউনিয়নের পূর্ব গাটিয়াডাঙ্গা হাঙ্গরমুখ এলাকায় ঘটনাস’লে আসে তদনত্ম টিম।
চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক কর্তৃক গঠিত তদনত্ম টিমে রয়েছেন- অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মাশহুদুল কবির, ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. হুমায়ুন কবির, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার
(সাতকানিয়া সার্কেল) হাসানুজ্জামান মোলস্না, সাতকানিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মোবারক হোসেন ও স’ানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তসলিমা আক্তার।
তদনত্ম টিমের প্রধান অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মাশহুদুল কবির বলেন, হতাহতের ঘটনা তদনেত্ম আমরা ঘটনাস’লে আসলাম। ওই ঘটনা সম্পর্কে তদনত্ম চলছে। এই মুহূর্তে কিছুই বলা যাচ্ছে না। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে তদনত্ম কাজ শেষ করে রিপোর্ট জমা দেয়া হবে।
প্রসঙ্গত, কবির স্টিল রি রোলিং মিল-কেএসআরএমের মালিক হাজী মো. শাহজাহানের পড়্গে এলাকার দুস’দের মাঝে গত সোমবার সকাল সাড়ে ১০টায় উপজেলার নলুয়া ইউনিয়নের পূর্ব গাটিয়াডেঙ্গা গ্রামের হাঙ্গরমুখ এলাকার কাদেরিয়া মুঈনুল উলুম দাখিল মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে ইফতার ও যাকাতসামগ্রী বিতরণকালে পদদলনের ঘটনা ঘটে। ঘটনাস’ল থেকে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ১০টি মরদেহ উদ্ধার করে।
ঘটনার পরের দিন মঙ্গলবার (১৫ মে) সকালে কেএসআরএম এর ব্যবস’াপনা পরিচালক (এমডি) হাজী মোহাম্মদ শাহজাহানকে প্রধান আসামি করে নিহত হাসিনা আক্তারের স্বামী মোহাম্মদ ইসলাম সাতকানিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।
মামলায় অবহেলায় মৃত্যুর কারণ দেখিয়ে দ-বিধির ৩০৪ (ক) ও ৩৪ ধারায় আসামিদের বিরম্নদ্ধে অভিযোগ আনা হয়। মামলায় কেএসআরএম এর এমডি শাহজাহান ছাড়াও আরো কয়েকজনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করা হয়।
মামলার পরিপ্রেড়্গিতে কর্তব্যকাজে অবহেলার অভিযোগে কেএসআরএম এর ৪ কর্মচারীকে সাতকানিয়া থানা পুলিশ গ্রেফতার করে। পরে গ্রেফতারকৃতরা আদালত থেকে জামিনে মুক্তি লাভ করেন।