সাতকানিয়ায় এলডিপি’র গণসংযোগে হামলা অলি’র ছেলেসহ আহত ১০

নিজস্ব প্রতিনিধি, সাতকানিয়া

আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চট্টগ্রাম-১৪ (চন্দনাইশ-সাতকানিয়া আংশিক) আসনের লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এলডিপি) মনোনীত প্রার্থী ও দলের চেয়ারম্যান কর্নেল (অব.) অলি আহমদের পড়্গে প্রচারণাকালে আওয়ামী লীগ কর্তৃক হামলার শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ করেছেন কর্নেল অলি আহমদের ছেলে ওমর ফারম্নক ওরফে সানি।
ঘটনাটি ঘটে গতকাল বেলা দেড়টার সময় সাতকানিয়া উপজেলার কেঁওচিয়া ইউনিয়নের তেমুহনী বৈদ্যবাড়ি এলাকায়।
উলেস্নখ্য, চন্দনাইশ উপজেলার সাথে সাতকানিয়ার অংশবিশেষ নিয়ে চট্টগ্রাম-১৪ আসন গঠিত। সাতকানিয়া উপজেলার যে ৬টি ইউনিয়ন নিয়ে চট্টগ্রাম-১৪ আসনটি গঠিত তন্মধ্যে কেঁওচিয়া ইউনিয়নও রয়েছে।
এলডিপি’র নেতাকর্মীরা অভিযোগ করেন, পূর্ব নির্ধারিত সময় অনুযায়ী কেঁওচিয়া এলাকায় প্রার্থীর ছেলেসহ নেতাকর্মীরা গণসংযোগ করতে গেলে আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ ও যুবলীগের সন্ত্রাসীরা লাঠিসোঁটা, দা-কিরিচ নিয়ে এলোপাতাড়ি হামলা করে। এ সময়
ত্রাস সৃষ্টির জন্য তারা ২ রাউন্ড ফাঁকা গুলিও ছোড়ে। সাতকানিয়া উপজেলা এলডিপির সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন বলেন, আমরা গণসংযোগ করে তেমুহনী বৈদ্যবাড়ি এলাকায় পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে ৭টি মোটর সাইকেল ও ৩টি পিকআপ নিয়ে প্রায় ৪০-৪৫ জন আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগকর্মী এসে বিনা উসকানিতে আমাদের ওপর হামলা চালায়। এ সময় তারা এলডিপি’র চেয়ারম্যান কর্নেল অলি আহমদের ছেলেকে লাঠি দিয়ে এলোপাতাড়ি পেটাতে থাকে। তাদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে কর্নেল অলি আহমদের ছেলে অধ্যাপক ওমর ফারম্নক ওরফে সানি, ভাতিজা মো. এয়াকুব, কেঁওচিয়া ইউনিয়ন এলডিপি’র সভাপতি আবু সৈয়দ লাদেন, তার ছেলে আহমদ হৃদয়, ভাই আবদুস ছালাম, ডেমোক্রেটিক শ্রমিক দলের সাধারণ সম্পাদক মো. এনাম, কেঁওচিয়া ইউনিয়ন এলডিপি সহসভাপতি মো. আকবর, আবদুল আজিজ, রবিউল করিম ও বাবু আহত হন। আহতদের স’ানীয় হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়। লাদেনকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে, এলডিপি’র নেতাকর্মীরা এ তথ্য জানান।
এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে সাতকানিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক কুতুব উদ্দিন চৌধূরী ও উত্তর সাতকানিয়া সাংগঠনিক থানার আওয়ামী যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক মো. ওসমান আলী বলেন, বিষয়টি আমরা শুনেছি। তাদের অভিযোগ সত্য নয়। আসল ঘটনা হচ্ছে, ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে এলডিপি নির্বাচন না করায় বিএনপি ও জামায়াত ড়্গুব্ধ হয়ে তাদের ওপর হামলা চালিয়েছে। এটা তাদের জোটগত কোন্দল।