সাকিব-মুশফিকদের কারণেই জায়গা পান না তুষার!

সুপ্রভাত ক্রীড়া ডেস্ক
Tushar

ঘরোয়া ক্রিকেট মানেই যেন তুষার ইমরানের ব্যাটে রানের ফোয়ারা। ফার্স্ট ক্লাস ক্রিকেটে তার রেকর্ডটা রীতিমতো ঈর্ষনীয়। ১০ হাজারী ক্লাবে এ সংস্করণে বাংলাদেশের একমাত্র সদস্যও তিনি। অথচ জাতীয় দলে জায়গা তো দূরের কথা, প্রাথমিক দলেও সুযোগ হয় না তার। জাতীয় দলে তার জায়গা না পাওয়া নিয়েও অনেক আলোচনা-সমালোচনা। এতো ভালো পারফর্ম করতেও কেন জায়গা পান না তুষার এ প্রশ্ন হাজারো বাংলাদেশি ক্রিকেট ভক্তের মনে। তবে রোববার তুষার নিজেই জানালেন তাকে জাতীয় দলে না নেওয়ার কারণ।
ফার্স্ট ক্লাস ক্রিকেটে তুষার ইমরান ব্যাটিং করেন চার নম্বর পজিশনে। আর ঠিক এই পজিশনে জাতীয় দলে খেলে থাকেন মুশফিকুর রহীম, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, সাকিব আল হাসান কিংবা মুমিনুল হক। আর দেশের সেরা ক্রিকেটারই তারা। নিয়মিত পারফর্মও করেন। তাই এ পজিশনে তাদের ছাড়িয়ে জাতীয় দলে জায়গা নেওয়াটা বেশ কঠিনই মনে করেন তুষার, ‘এখন যে দলটা খেলছে বাংলাদেশের হয়ে, খুব কঠিন তাদের ছাড়িয়ে যাওয়া। আমি যে পজিশনে ব্যাট করি সে পজিশনে মুশফিক আছে, রিয়াদ আছে, সাকিব আছে, তারপর মুমিনুলও আছে। এরাতো জাতীয় দলের হয়ে ধারাবাহিক পারফরম্যান্স করে যাচ্ছে।’ তবে জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা ভালো করলেও তাদের ছাড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টায় আছেন তুষার। ঘরোয়া ক্রিকেটে নিয়মিত রান করে যাচ্ছেন তিনি, ‘আমি আমার মতোই চেষ্টা করছি কাউকে ছাড়িয়ে যাওয়া যায় কি না। যে জায়গায় ব্যাট করি, সে জায়গাটা আসলে অনেক কঠিন। ওদেরকে ছাড়াতে হলে হয়তো আরও অনেক বেশি রান করতে হবে। আমি চেষ্টা করে যাচ্ছি। আর প্রমাণের একটাই জায়গা ঘরোয়া ক্রিকেটে। আমি এখানে সুযোগ পাচ্ছি, ভালো করে যাচ্ছি, ইনশা আল্লাহ সামনেও করবো।’ নিজেকে প্রমাণের জন্য ঘরোয়া ক্রিকেটকেই বেছে নিয়েছেন তুষার। তবে সামনেই বাংলাদেশ ‘এ’ দলের সিরিজ রয়েছে। সেখানে সুযোগের আশায় আছেন তিনি। শুধু নিজেই নন, আশা করছেন শাহরিয়ার নাফীস, নাঈম ইসলাম, অলক কাপালী, আব্দুর রাজ্জাকের মতো খেলোয়াড়দেরও সুযোগ দেওয়া হবে। আর সেখানেই নিজেদের প্রমাণ করে জাতীয় দলে ফেরার পথটা সুগম করতে চান বলে জানালেন তুষার, ‘সামনে ‘এ’ দলের সফর আছে এবং শ্রীলঙ্কা ‘এ’ দলও আসবে। তো যারা সিনিয়র আছে শাহরিয়ার নাফীস, নাঈম ইসলাম এবং রাজেরও (রাজ্জাক) সুযোগ আসতে পারে। আলক কাপালীও আছে। এদের যদি সুযোগ হয় ‘এ’ দলে তাহলে সেখানে পারফর্ম করেই জাতীয় দলে জায়গা নিতে প্রস’ত আছে সবাই।’ ঘরোয়া ক্রিকেটে নিয়মিত পারফর্ম করছেন তুষার। তবে আধুনিক ক্রিকেটে ফিটনেস অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। আর তাই নিজের ফিটনেসকেও ধরে রাখার চেষ্টা করছেন। তবে সবকিছুর আগে নিজের পারফরম্যান্সকেই গুরুত্ব দিচ্ছেন এই ক্রিকেটার, ‘আপনি যখন রান করবেন তখন এক্সট্রা ফিটনেস নিয়ে কাজ করা লাগেনা। যখন ইনজুরিতে পরেন তখনই ফিটনেসে ঘাটতি দেখা যায়। আমি ২২ গজে রান করে যাচ্ছি। ফিটনেস আলহামদুলিল্লাহ আগের চেয়ে ভালো। আর চেষ্টা করে যাচ্ছি আরও কিভাবে নিজেকে ফিট রাখা যায়।’ খবর পরিবর্তনের।