সরকার ও উন্নয়ন সংগঠনসমূহের সমন্বিত কার্যক্রম জরুরি : বনমন্ত্রী

বিজ্ঞপ্তি

আঞ্চলিক সম্মেলনে তৃণমূলে কাজ করা ছোট ক্ষুদ্রঋণদানকারী প্রতিষ্ঠান টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে বাংলাদেশ তথা উপকূলীয় ক্ষুদ্রঋণ প্রতিষ্ঠানের ভূমিকা নিয়ে এক আলোচনা সভা চট্রগ্রামের একটি স’ানীয় হোটেলে গতকাল শনিবার অনুষ্ঠিত হয়।
এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বন ও পরিবেশ মন্ত্রী ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ।
সিডিএফ’র নির্বাহী পরিচালক মো. আব্দুল আউয়ালের সঞ্চালনায় সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন অর্থ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব অরজিত চৌধুরী, মাইক্রোক্রেডিট রেগুলেটরি অথরিটি (এমআরএ)’র অমলেন্দু মুখার্জী, অর্থ মন্ত্রণালয়ের সচিব মুসলিম চৌধুরী, পল্লী কর্ম সহায়ক ফাউন্ডেশন (পিকেএসএফ)’র ব্যবস’াপনা পরিচালক মো. আব্দুল করিম, কোস্ট ট্রাস্টের নির্বাহী পরিচালক রেজাউল করিম চৌধুরী, কোডেকের উপনির্বাহী পরিচালক কমল সেনগুপ্ত এবং এনআরডিএস এর নির্বাহী পরিচালক আবদুল আউয়াল। মূল প্রবন্ধ উপস’াপন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তণ অধ্যাপক এম এ বাকী খলীলী।
সভায় প্রধান অতিথি বলেন, সরকার এবং উন্নয়ন সংগঠনসমূহের সমন্বিত কার্যক্রম গ্রহণ জরুরি। এক্ষেত্রে উদ্যোক্তা উন্নয়নে ব্যাংক, আর্থিক প্রতিষ্ঠান এবং বেসরকারি প্রতিষ্ঠানসমূহকে এগিয়ে আসতে হবে।
তিনি ক্ষুদ্রঋণ প্রতিষ্ঠানসমূহের সেবার মাধ্যমে জনগোষ্ঠীর সামগ্রিক উন্নয়নের কথা উল্লেখ করেন।
অরজিত চৌধুরী বলেন, গৃহায়ণ নিয়ে সরকারের কর্মসূচি রয়েছে। এছাড়াও বস্তির মানুষদের নিজ এলাকায় ফেরার জন্য ঘরে ফেরা কর্মসূচি বাস্তবায়িত হচ্ছে। তিনি মন্ত্রণালয় থেকে এমএফআইগুলোকে সহযোগিতার আশ্বাস দেন। অধ্যাপক এম এ বাকী খলীলী তার প্রবন্ধে টেকসই উন্নয়ন অভিষ্ঠ লক্ষ্যমাত্রা অর্জণে ক্ষুদ্রঋণ প্রতিষ্ঠানসমুহের কার্যক্রম এবং এর ফলে জনগোষ্ঠীর আয়, সম্পদ বৃদ্ধি, নারীর ক্ষমতায়ন এবং দুযোর্গ মোকাবিলায় সক্ষমতা বৃদ্ধির হার উপস’াপন করেন। প্রবন্ধের প্রেক্ষিতে কোস্ট ট্রাস্টের নির্বাহী পরিচালক রেজাউল করিম চৌধুরী, কোডেকের উপ-নির্বাহী পরিচালক কমল সেনগুপ্ত এবং এনআরডিএস এর নির্বাহী পরিচালক আবদুল আউয়াল আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন। মাইক্রোক্রেডিট রেগুলেটরি অথরিটি (এমআরএ)’র অমলেন্দু মুখার্জী বলেন, আইনি বাধ্যবাধকতার কারণে ক্ষুদ্রঋণ প্রতিষ্ঠানগুলো বীমা কর্মসূচি পরিচালনা করতে পারবে না। তিনি স্বেচ্ছা ও মেয়াদি আমানতে বর্তমান সীমারেখা ২৫ শতাংশের স’লে ৩৫ শতাংশে উন্নীত করার আশ্বাস দেন।
সচিব মুসলিম চৌধুরী বলেন, এসডিজি অর্জনে সরকারের সাথে সাথে ক্ষুদ্রঋণ প্রতিষ্ঠানগুলোকেও সমান তালে কাজ করতে হবে। এ বিষয়ে ক্রেডিট প্লাস এপ্রোচে কাজ করার পরামর্শ দেন তিনি।
অনুষ্ঠানের শুরুতে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন ক্রেডিট অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (সিডিএফ)’র নির্বাহী পরিচালক আব্দুল আওয়াল ও স্বাগত বক্তব্য দেন আইডিএফ’র নির্বাহী পরিচালক জহিরুল আলম।