জেলহত্যা দিবসের সভায় আ জ ম নাছির

সরকারকে ধাক্কা দিতে ষড়যন্ত্র হচ্ছে

নিজস্ব প্রতিবেদক

‘সরকারকে ধাক্কা দিতে ষড়যন্ত্র হচ্ছে’ বলে মন্তব্য করেছেন চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতা হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের বংশধরদের সঙ্গে আঁতাত করে কেউ কেউ সরকারকে ধাক্কা দেওয়ার ষড়যন্ত্র করছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।
গতকাল নগর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে জেলহত্যা দিবসের আলোচনা সভায় একথা বলেন তিনি। জাতীয় চার নেতা সৈয়দ নজরুল ইসলাম, তাজউদ্দিন আহমেদ, এম মনসুর আলী ও এ এইচ এম কামরুজ্জামানের হত্যা দিবস উপলক্ষে এ সভার আয়োজন করে নগর আওয়ামী লীগ। চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে এ কর্মসূচি পালিত হয়।
‘বঙ্গবন্ধু হত্যা ও জেল হত্যার পেছনে জিয়াউর রহমানের প্রত্যক্ষ ইন্ধন ছিল’ উল্লেখ করে আ জ ম নাছির বলেন, ‘ জিয়াউর রহমান হত্যকারীদের রক্ষার জন্য ইনডেমনিটি অধ্যাদেশ সংসদে পাস করিয়েছিলেন। হত্যাকারীদের রক্ষার জন্য পৃথিবীর কোনো দেশের সংসদে এ ধরনের অসভ্য আইন পাস করানোর নজির নেই।’ তিনি বলেন, ‘এ হত্যাকারীদের রক্ষায় যারা চেষ্টা করেছে তাদের বংশধরদের সাথে আঁতাত করে কেউ কেউ এখন সরকারকে ধাক্কা দিতে ষড়যন্ত্র করছে। বঙ্গবন্ধু ও জেলহত্যার সুবিধাভোগীদের সাথে রাজনৈতিক আঁতাতকারীরা জাতীয় বেঈমান। তাদের বিরুদ্ধে আওয়ামী লীগ সবসময় রাজপথে থাকবে।’
আ জ ম নাছির বলেন, ‘জেলখানা হচ্ছে একটি সবচেয়ে নিরাপদ জায়গা। এ নিরাপদ জায়গায় বঙ্গবন্ধুর অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ ও আস’াভাজন, রাজনৈতিক সহচর জাতীয় চার নেতাকে রাতের আঁধারে হত্যা করে পৃথিবীর ইতিহাসে আরেকটি কলঙ্কিত অধ্যায় রচনা করা হয়েছিল। এ অধ্যায়টি বাংলাদেশে মধ্যযুগীয় বর্বরতার চেয়েও ভয়াবহ। আওয়ামী লীগের হাজার হাজার নেতাকর্মীর আন্দোলন সংগ্রাম, লড়াই ও আত্মত্যাগের মাধ্যমে এ অধ্যায়টির অবসান হয়েছে।’
তিনি আরও বলেন, ‘দীর্ঘ ২১ বছর পর বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের প্রতিনিধি হিসেবে ক্ষমতায় বঙ্গবন্ধু হত্যাকারী ও যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের রায় কার্যকর করে জাতিকে পাপমুক্ত করেছেন। সাথে সাথে বাংলাদেশকে অর্থনীতির উন্নয়নের রোল মডেলে পরিণত করেছেন।’
সভাপতির বক্তব্যে নগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু হত্যা ও জেল হত্যার মাধ্যমে ৭১’র পরাজিত শক্তি চেয়েছিল আওয়ামী লীগ ও বাঙালি জাতিসত্তাকে নিশ্চিহ্ন করে দিতে। কিন’ তাদের সে স্বপ্ন পূরণ হয়নি। শেখ হাসিনার দূরদৃষ্টির কারণে তারা আজ ইতিহাসের আস’াকুঁড়ে নিক্ষিপ্ত হয়েছে। তাই যতদিন শেখ হাসিনার হাতে থাকবে দেশ, নিরাপদ থাকবে বাংলাদেশ।’
নগর আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক শফিকুল ইসলাম ফারুকের সঞ্চালনায় সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সহসভাপতি নঈম উদ্দিন চৌধুরী, অ্যাডভোকেট ইব্রাহিম হোসেন চৌধুরী বাবুল, খোরশেদ আলম সুজন, জহিরুল আলম দোভাষ ও আলতাফ হোসেন চৌধুরী বাচ্চু, সাংগঠনিক সম্পাদক চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী, বন ও পরিবেশ সম্পাদক মশিউর রহমান চৌধুরী প্রমুখ।