মুক্তধ্বনি আবৃত্তি সংসদের অনুষ্ঠানে বক্তারা

সমাজের অনাচার দূর করতে সাংস্কৃতিক চর্চার বিকল্প নেই

বাঙালির নিজস্ব সংস্কৃতির যে বলয় তা দিগন্ত ছোঁয়া আকাশের সীমানা ছাড়িয়ে যাবে যদি আমরা তা সত্যিকার অর্থে সর্বোত্তমভাবে ব্যবহার ও প্রচার করি। নতুন প্রজন্ম যারা একদিন বাঙালি সংস্কৃতির ধারক হয়ে এই বিশ্বে নতুন বাঙালি সভ্যতার উন্মেষ ঘটাবে। আমরা যে যেখানে আছি সেখান থেকেই সংস্কৃতির বিকাশকে বিকশিত করতে পারলে সার্থকতা অনিবার্য রূপ নিয়ে উপসি’ত হবে। গতকাল বিকাল ৪ টায় চট্টগ্রাম জেলা শিল্পকলা একাডেমির অনিরুদ্ধ মুক্ত মঞ্চে মুক্তধ্বনি আবৃত্তি সংসদের অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় উপ কমিটির সহ-সম্পাদক এম.এ. হান্নান বুলু।
এ সময় প্রতিযোগিতায় উদ্বোধক ও আলোচক হিসেবে উপলব্ধি ফাউন্ডেশনের সম্পাদক শেখ ইজাবুর রহমান বলেন, আমাদের সংস্কৃতিকে আরো বেশি করে বিকাশের জন্য প্রচারণা দরকার।
সভাপতির বক্তব্যে মোহাম্মদ মছরুর হোসেন বলেন, সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলো যদি মুক্তধ্বনির মতো এ সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড পৃষ্ঠপোষকতা করে তাহলে সাংগঠনিক চর্চার সাথে সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ড দিন দিন বৃদ্ধি পাবে। সমাজের অনাচার দূর করতে সুষ্ঠু সাংস্কৃতিক চর্চা ও বিনোদনের কোনো বিকল্প নেই।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা শিল্পকলা একাডেমির কালচারাল অফিসার মোছলেহ উদ্দিন সিকদার লিটন, সংগঠক আবু সুফিয়ান। এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন জাহিদ হোসেন রনি। বিজ্ঞপ্তি