সবাইকে সাথে চাই

নিজস্ব প্রতিনিধি, চকরিয়া

চকরিয়া উপজেলার ডুলাহাজারা ইউনিয়নের রিংভং শোয়াজনিয়া হরিমন্দিরে ধর্মসভা ও অষ্টপ্রহরব্যাপী মহানামযজ্ঞ অনুষ্ঠান গত বুধবার মন্দির প্রাঙ্গনে উৎসবমুখর আয়োজনে শুরম্ন হয়েছে। একই সঙ্গে বুধবার রাতে মন্দির কমিটির উদ্যোগে নবনির্বাচিত চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ ফজলুল করিম সাঈদীকে সংবর্ধনা দেয়া হয়েছে। অনুষ্ঠানের শুরম্নতে এদিন অনুষ্ঠিত ধর্মসভায় প্রধান অতিথি থেকে বক্তব্য রাখেন নবনির্বাচিত চকরিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আলহাজ ফজলুল করিম সাঈদী। শিবুধন সুশীলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ধর্মসভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন মনোরঞ্জন দেব বর্মন, শওকত হোসেন, ডা.উদয়ন শর্মা, অনিল কানিত্ম দাশ, বাদল কানিত্ম দাশ, দিলীপ সুশীল প্রমুখ। এছাড়াও অনুষ্ঠানে মন্দির কমিটির নেতৃবৃন্দ, হিন্দু সম্প্রদায়ের নেতৃবৃন্দ এবং সুধিজন উপসি’ত ছিলেন।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি চকরিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ ফজলুল করিম সাঈদী বলেছেন, এদেশে একসাথে বসবাস ও সব ধরনের অনুষ্টান আয়োজনে সকল ধর্মের মানুষের সমান অধিকার রয়েছে। আজ বিশ্বদরবারে প্রমাণিত হয়েছে জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন বর্তমান সফল সরকার সকলধর্মের মানুষের সবস’ানে সেতুবন্ধনে সম্প্রীতির বাংলাদেশ গড়ে তুলতে সফল হয়েছে।
তিনি বলেন, প্রতিটি ধর্মে বলা হয়েছে সামপ্রদায়িক সমপ্রীতি বিনষ্ট, সকল ধরনের অনাচার ও হানাহানিতে লিপ্ত গোষ্ঠী কোনদিন শানিত্মর পড়্গে হতে পারেনা। তাদের স’ান কোন ধর্মে নেই। উপজেলা চেয়ারম্যান সাঈদী আরও বলেন, চকরিয়া উপজেলা একটি সম্প্রীতির জনপদ। এখানে সকল ধর্মের মানুষ একসঙ্গে নিরাপদ পরিবেশে বসবাস করে। ধর্মীয় কোন ধরনের সংঘাত নেই। আশা করি আগামীতেও চকরিয়া উপজেলার প্রতিটি জনপদে সম্প্রীতির ধারা অব্যাহত থাকবে। সেইজন্য ধর্মবর্ণ নির্বিশেষে সম্প্রীতির মেলবন্ধনে আধুনিক চকরিয়া বিনির্মাণে নবনির্বাচিত চকরিয়া উপজেলা পরিষদ সমাজের সবাইকে সাথে নিয়ে কাজ করবে।