সবচে কম সময়ে বাংলা চ্যানেল পাড়ি

বিশ্বজয়ের স্বপ্ন দেখছেন সাজ্জাদ

নিজস্ব প্রতিনিধি, টেকনাফ

২৬ বছর বয়সী বগুড়া জেলার ছেলে মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বাংলা চ্যানেল পাড়ি দিয়ে ইতিহাসের পাতায় নাম লিখিয়েছেন। ২ ঘণ্টা ৫৫ মিনিট ৫১ সেকেন্ডে টেকনাফের সাবরাং ইউনিয়নের শাহপরীর দ্বীপের জিরো পয়েন্ট থেকে সাঁতরে ১৬ দশমিক ১ কিলোমিটার সমুদ্রপথ (বাংলা চ্যানেল) পাড়ি দিয়ে সেন্টমার্টিন দ্বীপে পৌঁছেন তিনি। সবচেয়ে কম সময়ে বাংলা চ্যানেল পাড়ি দেওয়ার গৌরব অর্জন করেন তিনি।
সেন্টমাটিন দ্বীপে পৌঁছে সাজ্জাদ বলেন, ‘বিশ্ব জয় করার জন্য স্বপ্ন দেখছি আমি। আমার টার্গেট ছিল যেকোনও মূল্যে আমাকে বাংলা চ্যানেল পাড়ি দিয়ে জয়ের স্বাদ নিতে হবে। আল্লাহ আমার সেই আশা পূরণ করেছেন। আগামীতে আরও বড় বড় অ্যাডভেঞ্চারে অংশ নিতে চাই। আমি আরও এগিয়ে যেতে চাই। এজন্য সরকার ও বিভিন্ন শ্রেণীর সহযোগিতা কামনা করছি।’
এর আগে বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা ৪০ মিনিটে বাংলা চ্যানেলে সাঁতার শুরু করেন ৩৪ জন সাঁতারু। ১২টা ৩৫ মিনিটে বাংলা চ্যানেল পাড়ি দিয়ে সেন্টমাটিন দ্বীপে প্রথম পৌঁছেন সাজ্জাদ। এ সময় দ্বীপের বাসিন্দারা তাকে ফুল দিয়ে অভিনন্দন জানান। সাজ্জাদ ছাড়াও একই গ্রামের মোহাম্মদ নয়ন ৩ ঘণ্টা ২৮ মিনিটে বাংলা চ্যানেল পাড়ি দিয়ে দ্বিতীয় হয়েছেন। তারা দুজই বগুড়া সরকারি কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্র। ৩ ঘণ্টা ৪৪ মিনিটে বাংলা চ্যানেল পাড়ি দিয়ে তৃতীয় হয়েছেন সাইফুল ইসলাম রাসেল। এদিকে দুপুর ২ টা পর্যন্ত মোট সাত সাঁতারু বাংলা চ্যানেল পাড়ি দিয়ে সেন্টমার্টিন পৌঁছেছেন।
সেন্টমার্টিন ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান নুর আহমদ বলেন, ‘সাজ্জাদ নামে একজন বাংলা চ্যানেল পাড়ি দিয়ে প্রথম দ্বীপে পৌঁছেছেন। দুপুর ২ টা পর্যন্ত মোট সাত সাঁতারু সেন্টমাটিন দ্বীপে পৌঁছেন।’